আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ ২০১১ সালের ক্রিকেট বিশ্বকাপ ফাইনাল ফিক্সিংয়ের অভিযোগে হুলুস্থুল কাণ্ড শ্রীলঙ্কায়। অবশেষে যাবতীয় জল্পনায় জল ঢেলে তদন্ত বন্ধ করল দ্বীপরাষ্ট্রের ক্রীড়ামন্ত্রকের নেতৃত্বাধীন বিশেষ তদন্তকারী দল। অরবিন্দ ডি’সিলভা, উপুল থরঙ্গা, কুমার সাঙ্গাকারার পর মাহেলা জয়বর্ধনে। ২০১১ বিশ্বকাপ ফাইনালে ম্যাচ ছেড়ে দেওয়ার অভিযোগ নিয়ে শুক্রবার জেরা করা হয় মাহেলাকে। তাঁর বয়ান রেকর্ডের পর তদন্তকারী দল জানিয়ে দেয়, কোনও ক্রিকেটারের বয়ানে অসঙ্গতি মেলেনি। তথ্যপ্রমাণের অভাবে তাই তদন্ত প্রক্রিয়া বন্ধ করা হল।
শুক্রবার কলম্বোয় সুগথাদাসা স্টেডিয়ামে ক্রীড়ামন্ত্রকের স্পেশাল ইনভেস্টিগেশনস ইউনিটের সামনে হাজিরা দিতে দেখা যায় জয়বর্ধনেকে। শ্রীলঙ্কার এক সাংবাদিক টুইট করে এই খবর প্রকাশ্যে আনেন। পোস্ট করা ছবিতে দেখা যায় জয়বর্ধনে নামছেন গাড়ি থেকে। সেই সাংবাদিক টুইট করেন, ‘‌গত কয়েক দিনে তিন জন প্রাক্তন অধিনায়ক ২০১১ বিশ্বকাপ ফাইনাল নিয়ে পুলিশের সামনে বিবৃতি দিলেন।’‌ 
বৃহস্পতিবার শ্রীলঙ্কা পুলিশ কুমার সাঙ্গাকারাকে প্রায় ১০ ঘণ্টা জেরা করেছে বলে স্থানীয় প্রচারমাধ্যমে খবর প্রকাশিত হয়েছে। যদিও সেই জেরা থেকে কিছু বেরিয়ে আসেনি। ২০১১ সালে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট দলের অধিনায়ক ছিলেন সাঙ্গাকারা। আর বিশ্বকাপ ফাইনালে সেঞ্চুরি করেছিলেন জয়বর্ধনে। এর আগে শ্রীলঙ্কার সেই দলের ওপেনার উপুল থরঙ্গাকে জিজ্ঞাসাবাদের মুখে পড়তে হয়েছিল। সেই বিশ্বকাপ দলের যিনি নির্বাচকমণ্ডলীর চেয়ারম্যান ছিলেন, সেই অরবিন্দ ডি’সিলভার বক্তব্যও রেকর্ড করা হয়েছে। তাঁকে ছয় ঘণ্টা জেরার মুখে পড়তে হয়েছিল।
২০১১ সালে বিশ্বকাপ ফাইনালে ভারত বনাম শ্রীলঙ্কার ম্যাচে গড়াপেটার অভিযোগ তুলেছিলেন শ্রীলঙ্কার প্রাক্তন ক্রীড়ামন্ত্রী মাহিন্দানন্দ অতুলগামাগে। সেই অভিযোগের ভিত্তিতে গত ২৪ জুন তদন্তের নির্দেশ দেয় শ্রীলঙ্কা ক্রীড়ামন্ত্রক। ক্রীড়ামন্ত্রকের অধীনে পুলিশের একটি বিশেষ কমিটি এই তদন্ত শুরু করে। কিন্তু শুক্রবার যাবতীয় জল্পনায় জল ঢেলে দিল তদন্তকারী দল। 

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});
জনপ্রিয়

Back To Top