দেবাশিস দত্ত,ম্যাঞ্চেস্টার: যেন তিনিই নিকোলাসকে বোল্ড করেছেন। উইলিয়ামসনের ক্যাচ ধরেছেন। রস টেলরকে রান আউট করেছেন। এবং ৫৯ বলে ৭৭ রান করেছেন।রবীন্দ্র জাদেজার চমকপ্রদ সাফল্য সম্পর্কে এতটাই উচ্ছ্বসিত মনে হল দিলীপ দোশিকে। কখনও জাদেজার জন্য খুশির ঝলক। কখনও বা রাগ–দুঃখ–অভিমানের মেঘ, ‘‌বলেছিলাম জাদেজাকে বাদ দেওয়া অবিচার হচ্ছে। কেন এতদিন ওর প্রতি উপযুক্ত নজর এবং সম্মান দেওয়া হয়নি? আমাদের দেশে কথায় কথায় তদন্ত কমিটি তৈরি করা হয়। কেন জাদেজাকে উপেক্ষা করার কারণ অনুসন্ধান করা হবে না?‌’‌ দোশিকে থামানো যাচ্ছিল না! ‘‌এমন অবিচারের কারণ কে জানাতে পারে?‌ যারা প্রথম এগারো বাছার দায়িত্বে, তাদের কাছে জানতে চাই না। কারণ ওরা ঠিক উত্তর দেবে না। কেন প্রথম এগারো বেছে নেওয়ায় নিরপেক্ষ দৃষ্টিভঙ্গি দেখাল না রবি শাস্ত্রী, বিরাট কোহলিরা?‌’‌
আর কী কী বললেন দিলীপ দোশি?
‘জাদেজা উইলিয়ামসনের ক্যাচটা কীভাবে ধরেছিল, সবাই আরও একবার ভিডিওতে দেখে নিন। ক্যাচটা এসেছিল ওর মাথার ওপর। যেই দেখল বলটা ওকে টপকে মাটিতে নামছে, তখন স্পট জাম্প করে পেছনের দিকে শরীর নিয়ে হাত বাড়িয়ে দিয়েছিল। টেরিফিক ক্যাচ! তারপর রান আউট। রস টেলর তখন রান আউট না হলে ২৩৮–এর চেয়েও বেশি রান তুলে ফেলতে পারত নিউজিল্যান্ড। সবশেষে ব্যাটিং। যে পিচে ধোনির মতো ব্যাটসম্যান সিঙ্গল্‌স নিচ্ছিল, সেখানে জাদেজা অনেক বেশি গতিতে রান তোলার দিকে মন দিয়েছিল। আমি দেখেছি দীর্ঘ উপেক্ষার আগুন জাদেজার চোখ–মুখ–ব্যাট থেকে ঠিকরে বেরোচ্ছিল। আমাকে এই বিশ্বকাপের সেরা একাদশ গড়তে দেওয়া হলে একটাই স্পিনার রাখব এবং সে হবে রবীন্দ্র জাদেজা। 
• কেন জাদেজাকে উপেক্ষা করা হচ্ছিল?‌
দোশি:‌ বলতে পারব না। তবে জানার আগ্রহ থাকল। যে ছেলেটা শুধু ফিল্ডিংয়ে ২০–২৫ রান বঁাচিয়ে দিতে পারে, টেনে টেনে বল করে রান আটকে রাখতে পারে, যার ব্যাটে ২০–৩০ রানের ভরসা করা যায়, তাকেই দলের বাইরে রাখা হল?‌ এই ২০১৯ সালে যোগ্যতা থাকা সত্ত্বেও এমন ঘটনা ঘটবে মানা কঠিন। ভিজিয়ানাগ্রাম, লালা অমরনাথদের আমলে এমন ঘটত। এবার তো জাদেজা সবার মুখে ঝামা ঘষে দিল!‌ এর আগেও অকারণে জাদেজাকে টেস্ট ও ওয়ান–ডে টিম থেকে বাদ দেওয়ার পরিকল্পনা করা হয়েছিল। অত্যন্ত খারাপ ব্যাপার। কুরুচিকরও বটে।
• বলা হচ্ছে মহেন্দ্র সিং ধোনির কারণেই ভারত হেরে গেল।
দোশি:‌ ভারত হেরে গেছে ৫ রানে ৩ উইকেট চলে যাওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই। যখন জাদেজা ব্যাট করছিল, তখন ধোনির আরেকটু চালিয়ে খেলা উচিত ছিল। সেমিফাইনালের মতো ম্যাচে সব রান শেষ ২ ওভারে তুলব, এই অঙ্কটা মানি না। তার মানে ধোনিকে বাদ দিয়ে খেলার পরামর্শও দিচ্ছি না। বিশ্বকাপে ধোনিকে নিয়ে কোনও ভুল করা হয়নি। ধোনির অতীতের কথা ভেবে বিরাট–শাস্ত্রীরা ওকে নিয়ে থাকলে বলব, ওরা অন্তত এটুকু শ্রদ্ধা দেখিয়েছে। পৃথিবীর কোন দল ৩ উইকেটকিপার রেখেছে?‌ কেন দীনেশ কার্তিকের সমালোচনা হচ্ছে না?‌ ২৫ বলে ৬ রান!‌ সে অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান‌? আমি তো জানতাম, ধোনি আহত না হলে কার্তিককে খেলানো হবে না। কার্তিককে ১৫ জনের দলে রাখা এবং প্রথম এগারোয় সুযোগ দেওয়াটা বড় ক্রাইম। স্বীকৃত ব্যাটসম্যানের জায়গায় নড়বড়ে কার্তিককে নেওয়া হয়েছিল কোন যুক্তিতে?‌ ক্রিকেটীয় যুক্তি যে ছিল না, এটা বুঝতে পারছি।
• আপনি তো প্রচণ্ড রেগে আছেন! 
দোশি:‌ ম্যাট হেনরিকে কে চিনতেন?‌ এমন বোলারের স্যুইংয়ে বেসামাল হয়ে পড়ল যারা, তারা কি ভেবেছিল এখানে ফিরোজ শাহ কোটলার উইকেট পাবে?‌ বৃষ্টি পড়েছিল। বল সিম করছিল। তখন যে পিচের চরিত্র বদলে যায় এবং সতর্ক থাকতে হয়, টেকনিকের দিক থেকে সাবলীল হতে হয়, এ ব্যাপারটা ভুলে গিয়েছিল সবাই?‌ ক্রিকেট যারা জানে না, তারা ধোনিকে দায়ী করছে। কিন্তু যারা খেলাটা বোঝে, তারা কি বিরাট কোহলির ব্যাটিংয়ের ভুল দেখতে পায় না?‌ একমাত্র রোহিত শর্মার বলটা আনপ্লেয়েব্‌ল ছিল। বাকি সব ক’‌টা উইকেট ওরা ছুঁড়ে দিয়েছে। যদি পাল্টা বলি, ভারতের বোলাররাও খারাপ বোলিং করেছে বলে নিউজিল্যান্ড ২৩৯ পর্যন্ত পৌঁছতে পেরেছিল?‌ নিউজিল্যান্ড তো টস জিতে সাহস করে ব্যাটিং করেছে। পিচ তখন অনেক তাজা ছিল। সেখানে ভারতীয় বোলাররা কেন ৫ রানে ৩ উইকেট তুলে নিতে পারেনি?‌ ২৩৯ পর্যন্ত এগোতে দেওয়া হয়েছিল কেন?‌ 
• ভারতীয় দল কি পিচের চরিত্র বুঝতে ভুল করেছিল?‌
দোশি: যুজবেন্দ্র চাহাল ১০ ওভারে ৬৩ রান দিয়ে পেয়েছিল ১ উইকেট। স্কোর যা দেখছি, দু’‌দলের ১১ জন বোলারের মধ্যে কেউ এত বেশি রান দেয়নি। তাহলে সামিকে কেন খেলানো হল না?‌ নির্বাচকরা বলুন, কেন কার্তিককে সুযোগ দেওয়া হয়েছিল। পর্দার পেছনে কোন নাটক আছে।‌ উত্তর পাওয়া যাবে না তবু জানতে চাওয়া উচিত। যাতে ওরা বোঝে, দলের বাইরে থাকা অনেক মানুষ ওদের অসভ্যতা সম্পর্কে ওয়াকিবহাল। মাঝখান থেকে বিশ্বকাপটা গেল ফস্‌কে!‌

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});
জনপ্রিয়

Back To Top