আজকালের প্রতিবেদন- গোটা দেশের তখনও ভাল করে ঘুম ভাঙেনি। তার আগেই ওয়েলিংটনের বেসিন রিজার্ভে প্রথম টেস্টের চতুর্থ দিনের প্রথম সেশনেই নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে ১০ উইকেটে হেরে গেল বিরাট কোহলির ভারত। বিশাল পরাজয় এ বিষয়ে কোনও সন্দেহ নেই। মেনেও নিয়েছেন ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলি। ‘আগেও ম্যাচ হেরেছি আমরা। কিন্তু লড়াই করেছি হেরেছি। এটাই আমাদের ক্রিকেট–সংস্কৃতি। এখানে আমরা বিনা লড়াইয়ে হারলাম। খারাপ লাগা সেখানেই। আমাদের ব্যাটসম্যানরা কোনও লড়াই দেখাতে পারল না। গোটা দলের মধ্যেই লড়াকু মনোভাব ছিল না।’ 

ছিল না তো বটেই। সোমবার ভারতীয় দল দ্বিতীয় ইনিংসে গুটিয়ে গেল মাত্র ১৯১ রানে! নিউজিল্যান্ডের সামনে মাত্র ৯ রানের ‘লক্ষ্য’রেখে! দ্বিতীয় ইনিংসে নিউজিল্যান্ডের জয়ের জন্য ৯ রান তুলতে সময় লাগল ১.৪ ওভার। বিরাট কোহলির মতে, ‘আমরা যদি প্রথম ইনিংসে ২২০–২৩০ মতো রান তুলতে পারতাম তাহলেও আমাদের বোলাররা লড়াই করার রসদ খুঁজে পেত। কিন্তু আমরা ব্যাটসম্যানরা সেটা পারিনি। আর দ্বিতীয় ইনিংসে শেষ তিনটে উইকেট খুব তাড়াতাড়ি পড়ল। রানটা বাড়ানো গেল না। সব মিলিয়ে খারাপ পারফরমেন্স। প্রথম ইনিংসেই আমরা পিছিয়ে পড়েছিলাম। টসটা ফ্যাক্টর হয়ে গেল। কিন্তু টস তো হাতে থাকে না। প্রথম ইনিংসের পিছিয়ে পড়া থেকে আমরা আর বেরতে পারিনি। পরে সময়ের সঙ্গে সঙ্গে টেস্টে পুরোটাই পিছিয়ে পড়লাম।’

সোমবার সকালে যাঁর ব্যাটের দিকে তাকিয়ে ছিল গোটা ভারতীয় শিবির সেই সহ–অধিনায়ক অজিঙ্কা রাহানে প্রথম ফিরে যান বোল্টের ডেলিভারিতে নিরীহ খোঁচায়। তারপর একে একে হনুমা বিহারি, রবিচন্দ্রন অশ্বিন, ইশান্ত শর্মা, খানিকটা চালিয়ে খেলা ঋষভ পন্থ এবং বুমরা আউট হয়ে যান। চতুর্থ দিন জ্বলে উঠলেন টিম সাউদি।  ৯ রানের পুঁজি নিয়ে কী লড়বেন প্রথম ইনিংসে জ্বলে ওঠা ভারতীয় পেসার ইশান্ত। ফলস্বরূপ যা হওয়ার সেটাই হল। বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় হেরে গেল ভারত। বিরাট কোহলির জমানায় প্রথমে ব্যাট করে এটা দ্বিতীয় ১০ উইকেটে পরাজয়। এর আগে  ২০১৮–েত লর্ডসে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে বিরাট কোহলির ভারত হেরে ছিল ইনিংস এবং ১৫৯ রানে। তারপর বেসিন রিজার্ভে বড় পরাজয়।

নিজের ব্যাটিংয়ের অফ ফর্ম নিয়েও ওয়েলিংটনে মুখ খুলেছেন ভারত অধিনায়ক। বিরাট কোহলি মনে করেন, ‘আমি ঠিকঠাক ব্যাটিং করছি। আমার কাছে ৪০ রান তেমনই গুরুত্বপূর্ণ যে দল জিতল। ১০০ করলাম দল হেরে গেল সেটা আমার কাছে ভাল ব্যাপার নয়। আমি ব্যাটিং ইউনিট হিসেবে ব্যাট করতে চাই। আমার ফর্ম নিয়ে কোনও সমস্যা নেই।’ পাশাপাশি পরের টেস্ট হ্যামিল্টনে ফিরে আসার কথাও জানিয়েছেন ভারত অধিনায়ক। ‘হ্যামিল্টনে আমরা একটা ইউনিট হিসেবে খেলব। চেষ্টা করব নিজেদের চেনা ছন্দ ফিরিয়ে আনতে। যেভাবে আমরা ক্রিকেট খেলে থাকি। লড়াই করা। সেটাই সবাই মিলে করার চেষ্টা করব।’

১০ উইকেটে ভারতকে উড়িয়ে দিয়ে নিউজিল্যান্ডের শততম টেস্ট জয়ের অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসনের বক্তব্য হল, ‘দুর্দান্ত জয়। আমরা জানি এই ভারত বিশ্বের সব জায়গাতেই শক্তিশালী হয়ে মাঠে নামে। তাদের বিরুদ্ধে এমন জয় দারুণ ব্যাপার। প্রথম ইনিংসে আমােদর বোলাররা যেভাবে নিখুঁত নিশানায় বোলিং করেছে সেটাই জয়ের অন্যতম কারণ। সব মিলিয়ে এই জয় উপভোগ করার মতোই।’

স্কোর

ভারত প্রথম ইনিংস ১৬৫।

নিউজিল্যান্ড প্রথম ইনিংস ৩৪৮।

ভারত দ্বিতীয় ইনিংস (তৃতীয় দিনের ১৪৪/৪ পর) : রাহানে কট ওয়াটলিং ব বোল্ট ২৯, হনুমা বিহারি ব সাউদি ১৫, ঋষভ পন্থ কট বোল্ট ব সাউদি ২৫, অশ্বিন এলবিডব্লু সাউদি ৪, ইশান্ত এলবিডব্লু গ্র্যান্ডহোম ১২, সামি অপরাজিত ২, বুমরা কট মিচেল (পরিবর্ত) ব সাউদি ০, অতিরিক্ত ২, মোট ১৯১। উইকেট পতন: ১৪৮/৫, ১৪৮/৬, ১৬২/৭, ১৮৯/৮, ১৯১/৯, ১৯১/১০। বোলিং: সাউদি ২১–৬–৬১–৫, বোল্ট ২২–৮–৩৯–৪, গ্র্যান্ডহোম ১৬–৫–২৮–১, জেমিসন ১৯–৭–৪৫–০, আজাজ প্যাটেল ৩–০–১৮–০।

নিউজিল্যান্ড দ্বিতীয় ইনিংস

ল্যাথাম অপরাজিত ৭, ব্লুনডেল অপরাজিত ২, মোট: ৯। বোলিং: ইশান্ত ১–০–৮–০, বুমরা ০.৪–০–১–০।

ফলাফল: নিউজিল্যান্ড ১০ উইকেটে জয়ী।

টেস্টের সেরা: টিম সাউদি।    

‌‌

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});
জনপ্রিয়

Back To Top