আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ সিডনি টেস্টে আম্পায়ার পল উইলসনকে গালিগালাজ করেছিলেন। দ্বিতীয় ইনিংসে রবিচন্দ্রন অশ্বিন ব্যাট করার সময় তাঁকে স্লেজিং। এখানেই শেষ নয়। সুনীল গাভাসকারকে পর্যন্ত চরম অসম্মান করা। ভদ্রতার সব মাত্রা ছাড়িয়ে গিয়েছেন অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক টিম পেইন। আর তাই অসি অধিনায়ককে এবার একহাত নিলেন অস্ট্রেলিয়ার আর এক প্রাক্তন অধিনায়ক গ্রেগ চ্যাপেল। 
গ্রেগ তাঁর কলামে লিখেছেন, ‘টিম পেইন, তুমি অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক। সেটা ভুলে যেও না। গোটা দেশ তোমার দিকে তাকিয়ে আছে। তাই ভদ্র ও বিনয়ী হও। মানুষের সঙ্গে ভাল ব্যবহার করতে শেখো। তুমি কত বড় ক্রিকেটার সেটা মানুষ মনে রাখবে না। ভাল মানুষ হলে সেটাই সকলে মনে রাখবে। মানুষের সাথে খারাপ ব্যবহার করলে দুর্বল চরিত্র প্রকাশ পায়। তোমার কাজ নিয়মের মধ্যে থেকে ক্রিকেট খেলা। সততার সঙ্গে দলকে নেতৃত্ব দেওয়া। বিপক্ষ ক্রিকেটার কিংবা আম্পায়ারের সঙ্গে অহেতুক ঝামেলায় জড়ানো তোমায় সাজে না।’‌
সিডনি টেস্টে একাধিক বিতর্কে জড়িয়ে যাওয়ায় টিম পেইনের পারফরম্যান্সেও প্রভাব পড়েছিল। সেই টেস্টে পাঁচটা ক্যাচ ফস্কান। ম্যাচ ফি–র ১৫ শতাংশ জরিমানাও হয়। পরে নিজের দোষ স্বীকার করেছিলেন টিম পেইন। অবশ্য গ্রেগ তাঁর দেশের বর্তমান অধিনায়ককে বিনয়ী ও ভদ্র হওয়ার নির্দেশ দিলেও, খেলোয়াড় জীবনে তিনিও এমন ‘‌আন স্পোর্টিং’‌ কান্ড ঘটিয়েছেন। ১৯৮১ সালে নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে একদিনের ম্যাচ। কিউয়িদের জেতার জন্য শেষ বলে প্রয়োজন ৬ রান। তৎকালীন অধিনায়ক গ্রেগ তাঁর ভাই ট্রেভর চ্যাপেলকে ‘‌আন্ডার আর্ম’‌ বোলিং করতে বলেন। ফলে প্রবল সমালোচিত হয়েছিলেন তিনি।
তবে বয়স বাড়লে অভিজ্ঞতা বাড়ে। গুরু গ্রেগ তাঁর ভুল থেকে শিক্ষা নিয়েছেন। তিনি পেইনের উদ্দেশে আবার লিখেছেন, ‘‌পেইন, ক্রিকেট হল জেন্টলসম্যান গেম। এই খেলায় নোংরা ভাষার প্রয়োগ কাম্য নয়। ভদ্রতার সীমা ছাড়ালে সেটা তোমার ব্যক্তিত্বকে প্রতিফলিত করবে। বরং ভদ্র হও। এতে চরিত্র দৃঢ় হবে। নিয়ম মেনে দলকে নিয়ে পারফরম্যান্স করলে আগামী প্রজন্মও উদ্বুদ্ধ হবে। তাই খেলায় মন দাও। কারণ তুমি অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক। সেটা কিন্তু মনে রেখো। আমি যেটা পারিনি, সেটা তুমি করে দেখাও।’‌ 

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});
জনপ্রিয়

Back To Top