দেবাশিস দত্ত- হার্দিক পান্ডিয়ার চোট নিয়ে হয়রান নির্বাচক এবং বোর্ড সদস্যরা। তঁার ব্যক্তিগত ট্রেনার বলছেন, তিনি ১০০ শতাংশ ফিট। আবার তিনি নাকি ফিটনেস পরীক্ষায় ব্যর্থ হয়েছেন। শোনা যাচ্ছে, টেস্টের ধকল নেওয়ার ব্যাপারে খুব একটা আগ্রহী নন হার্দিক। তিনি সীমিত ওভারের ক্রিকেটে মন দিতে চান। অথচ নির্বাচকরা মনে করছেন, দলে ভারসাম্য আনার জন্য হার্দিককে প্রথম এগারোয় রাখা উচিত। সেক্ষেত্রে একজন ব্যাটসম্যান বা একজন বাড়তি বোলার খেলানো যেতে পারে। নির্বাচক সমিতি বিশেষ এক নির্বাচকের ওপর হার্দিকের সঙ্গে সরাসরি কথা বলার দায়িত্ব দেওয়ার কথা ভাবছে। পরিকল্পনা ছিল নিউজিল্যান্ড সফরে তাঁর সঙ্গে বিস্তারিতভাবে কথা বলে বোঝানোর চেষ্টা করা হবে, কেন তাঁর টেস্ট দলে থাকা প্রয়োজন। এখন ভারতেই তাঁর সঙ্গে আলোচনায় বসতে হবে। নির্বাচকরা চান হার্দিক টেস্ট দলে আসুন। রবিবার দল নির্বাচনী সভায় সবচেয়ে বেশি আলোচনা হয়েছে নভদীপ সাইনি এবং শার্দূল ঠাকুরকে নিয়ে। তঁাদের নিয়ে আশাবাদী নির্বাচকরা। তঁাদের বিশ্বাস, নিউজিল্যান্ড সফরে এই দুজনকে সামলাতে কিউয়ি ব্যাটসম্যানদের হিমশিম খেতে হবে। সঞ্জু স্যামসনকে আপাতত অপেক্ষায় থাকতে হবে। এক নির্বাচকের কথায়, ‘‌মণীশ পান্ডেই নিয়মিত জায়গা পাচ্ছে না। সেখানে সঞ্জু বা সূর্যকুমার যাদবকে দলে রেখে বিশেষ লাভ হবে না। তার চেয়ে ওরা প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে রান করতে থাকুক। জায়গা হলেই ওদের ডেকে নেওয়া হবে।’‌

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});
জনপ্রিয়

Back To Top