আজকাল ওয়েবডেস্ক: প্রথমে বলে দেওয়া যাক, তৃতীয় দিনের খেলা শেষে অস্ট্রেলিয়া ৫৪ রানে এগিয়ে আছে। তাদের হাতে দশ উইকেটে। ভারত দশ উইকেটে হারিয়ে সংগ্রহ করেছে ৩৩৬ রান। কিন্তু এই পরিসংখ্যান বলবে না ব্রিসবেনের মাঠে কী অসম লড়াই লড়ে গেলেন শার্দূল ঠাকুর (৬৭) এবং ওয়াশিংটন সুন্দর (৬২)। বলবে না, যে বোলারদের বিরুদ্ধে রাহানে, পুজারা, ঋষভ পন্থ টিকলেন না, তাঁদেরই সামলে ১২৩ রানের পার্টনারশিপ গড়েছে শার্দুল-সুন্দর জুটি। 
এক্সট্রা-অর্ডিনারি! ঠিক এই শব্দটাই ম্যাচের শেষে ব্যবহার করলেন কিংবদন্তি ভারতীয় ব্যাটসম্যান সুনীল গাভাসকার। ১৮৬ রানে ৬ উইকেট হারিয়ে ধুঁকছিল ভারত। অনভিজ্ঞ টেল-এন্ডারদের দিয়ে ২০০ পার হবে কিনা, দুশ্চিন্তার মেঘ জমা হয়েছিল ব্রিসবেনের আকাশের চেয়েও ঘন। কিন্তু অস্ট্রেলিয়ানরা দেখল দুই অনভিজ্ঞ বোলারের দাঁত কামড়ে পালটা লড়াই, তাও ব্যাট হাতে। শার্দূল এবং ওয়াশিংটন এমন এমন শট খেললেন যা টপ অর্ডারের ব্যাটসম্যানরা খেলে তৃপ্তি পান। লং অনে ফিল্ডার থাকা সত্ত্বেও বিশাল ছক্কা মেরে ৫০ করলেন শার্দূল। কিছুক্ষণ পর হাফ-সেঞ্চুরি করলেন সুন্দরও। 
স্কোরবোর্ড অনুযায়ী এখনও সুবিধেজনক অবস্থায় রয়েছে টিম পেইনের দলই। কিন্তু অন্তত লড়াইয়ের জায়গায় পৌঁছেছে ভারত, যার কৃতিত্ব দুই তরুণ বোলারেরই। আগামিকাল অজিদের আড়াইশোর মধ্যে বেঁধে ফেলতে পারলে অনেক কিছুই ঘটতে পারে। কে বলতে পারে, বর্ডার-গাভাসকার ট্রফি নিয়েই হয়তো ঘরে ফেরার বিমানে উঠবেন অজিঙ্ক রাহানেরা!    
 

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});
জনপ্রিয়

Back To Top