ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো: আরও কতদিন এই তালিকায় তিনি থেকে যাবেন তা তিনিই জানেন। ৩৬ চলছে, এখনও লিগে সর্বোচ্চ গোলদাতা। ফিটনেস তরুণদের লজ্জা দিতে পারে। পর্তুগালকে আরও একবার ইউরোপ সেরা করার দায়িত্ব তারই কাঁধে। তবে এবার দলে তাঁকে সহায়তা করতে রয়েছেন একাধিক তারকা ফুটবলার।  
হ্যারি কেন: প্রিমিয়ার লিগে এবার সর্বোচ্চ গোলদাতা এবং সর্বোচ্চ অ্যাসিস্ট। তবু দল কোনও ট্রফি পায়নি। বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন, এই ব্যাপারটাই ইংল্যান্ড অধিনায়ককে চাগিয়ে রাখবে। দক্ষতা প্রশ্নাতীত। গত বিশ্বকাপে সোনার বুট জেতা কেন এবার ইউরো মাতাতে পারেন। কেনের দলেও সহায়তা করার একাধিক ভাল খেলোয়াড় রয়েছে।  
রোমেলু লুকাকু: ম্যান ইউ থেকে ইন্টার মিলানে গিয়ে ফর্ম ফিরে পেয়েছেন বেলজিয়ান স্ট্রাইকার। তাঁকে বল জোগানোর লোকেরও অভাব নেই, যে কারণে বেলজিয়াম এবার ইউরো জেতার অন্যতম দাবিদার। এডেন অ্যাজার ফর্মে নেই, তাই গোল করার গুরুদায়িত্ব তাঁরই কাঁধে। 
জিয়ানলুইজি ডোনারুমা: জিয়ানলুইজি বুফনের মতো কিংবদন্তি তারকা জাতীয় দল থেকে অবসর নিয়েছেন, কিন্তু তাতে ইটালির গোলে খুব প্রভাব পড়েনি। কারণ এই ২২ বছরের গোলকিপার। ইতিমধ্যেই এসি মিলানের নিয়মিত গোলকিপার। তাঁর ওপর ভরসা করছেন কোচ আন্তনিও কন্তে। 
করিম বেঞ্জেমা: বহুদিন পর জাতীয় দলে সুযোগ পেয়েছেন। ফর্মে আছেন এবং রোনাল্ডো রিয়াল ছাড়ার পর গোল করার দায়িত্ব একাই কাঁধে তুলে নিয়েছেন। ফ্রান্স দলটায় এমনিতেই প্রতিভার ছড়াছড়ি। এ বলে আমায় দেখ, ও বলে আমায় দেখ। কিন্তু তার মধ্যেও বেঞ্জেমার দক্ষতা এবং বড় ম্যাচ খেলার অভিজ্ঞতা নিঃসন্দেহে কাজে আসবে।   
 

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});
জনপ্রিয়

Back To Top