আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ ২০২২ কাতার বিশ্বকাপে যোগ্যতা অর্জনের আশা কার্যত শেষ ভারতের। বিশ্বকাপে যোগ্যতা অর্জনের জন্য জিততেই হত ওমান ম্যাচ। আর এই পরিস্থিতিতে খেলতে নেমে সুনীল ছেত্রীরা হেরে গেলেন ১–০ গোলে। মঙ্গলবার মাসকাটের সুলতান কাবুস স্টেডিয়ামে ওমানের বিরুদ্ধে সুনীলদের ছন্নছাড়া ফুটবল ভারতকে যোগ্যতা অর্জনের পথ থেকে কার্যত ছিটকেই দিল। এর ফলে বর্তমান পরিস্থিতিতে পরের পর্বে যেতে হলে শুধু নিজেদের বাকি ম্যাচ জিতলেই হবে না, তাকিয়ে থাকতে হবে অন্যদের দিকেও।
ঘরের মাঠে গুয়াহাটিতে ওমানের বিরুদ্ধে ১–২ গোলে হেরে গিয়েছিল ভারত। এদিন ছিল বদলা নেওয়ার সুযোগ। সেই সঙ্গে যোগ্যতা অর্জন পর্বে টিকে থাকার লড়াইও ছিল। কিন্তু এই পরিস্থিতিতে আবারও হার। শুরু থেকেই এদিন ভারতীয় রক্ষণকে ব্যতিব্যস্ত করে রেখেছিল ওমান। ম্যাচের বয়স তখন মাত্র ৬ মিনিট। নিজেদের বক্সে ওমানের মহসিনকে ট্রিপ করে ফেলে দিয়েছিলেন ভারতের ডিফেন্ডার রাহুল বেকে। শ্রীলঙ্কার রেফারি পেনাল্টি দেন ওমানের অনুকূলে। মাঠভর্তি ওমানের সমর্থকদের সামনে সকলকে অবাক করে মহসিন সেই পেনাল্টি ক্রসপিসের ওপর দিয়ে উড়িয়ে দেন। না হলে তখনই এগিয়ে যেত ওমান। তবে সেটা সাময়িক স্বস্তি ছিল সুনীলদের কাছে। কারণ, প্রথমার্ধে কোনও সময় ভারতীয় দলের নিয়ন্ত্রণে ছিল না খেলা। বরং ওমান শুরুর মিনিট থেকে প্রথমার্ধের শেষ বাঁশি বাজা পর্যন্ত নিজেদের দখলে বল রেখে রীতিমতো ছেলেখেলা করল ভারতীয় দলকে নিয়ে। ৩৩ মিনিটে ভারতীয় রক্ষণের নড়বড়ে মনোভাবের সুযোগে আল মান্ধারের থ্রু ধরে ঠান্ডা মাথায় গোলকিপার গুরপ্রীতের ডানদিক দিয়ে গড়ানো শটে গোল করে ওমানকে এগিয়ে দেন মহসিন। বলতে গেলে এই গোলটা তাঁর আগের মিসের প্রায়শ্চিত্ত।
দ্বিতীয়ার্ধেও ছিল প্রায় একই ছবি। ওমানের লাগাতার আক্রমণের সামনে খেই হারিয়ে ফেলছিল ভারতীয় দলের রক্ষণ। তবে শেষদিকে গোলশোধের কিছুটা মরিয়া চেষ্টা করছিলেন সুনীলরা। কিন্তু সেই কাঙ্খিত লক্ষ্যে আর সফল হয়নি ব্লু টাইগাররা। আর তাই ম্যাচ হেরেই মাঠ ছাড়তে হল ইগর স্টিম্যাচের ছেলেদের। এর আগে কাতারের সঙ্গে ড্র করে সাড়া জাগানো ভারতীয় দলের পারফরম্যান্সের গ্রাফ গত দু’‌টি ম্যাচ থেকেই ছিল নিম্নমুখী। প্রথমে বাংলাদেশ এবং পরে আফগানিস্থান– অপেক্ষাকৃত দুর্বল দুই প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধেও পিছিয়ে থেকে কোনওরকমে ড্র করে মানরক্ষা করেছিলেন সুনীলরা। কিন্তু এদিন আর সেটাও সম্ভব হল না। 
ভারত:‌ গুরপ্রীত, নিশুকুমার, রাহুল, আদিল (আনাস)‌, আশিক, উদান্তা, ব্র‌্যান্ডন, প্রণয় (বিনীত)‌, ফারুক, সুনীল ও মনবীর।‌

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});
জনপ্রিয়

Back To Top