আজকালের প্রতিবেদন: খেলার জন্য তাঁকে চষে বেড়াতে হয় গোটা বিশ্ব। তিনি দিল্লির মানুষ। ভারতে তাঁর স্থায়ী ঠিকানা মুম্বই। তবু বুধবার আমফান ঝড়ের ধ্বংসলীলা দেখে আর ঠিক থাকতে পারেননি বিরাট কোহলি।
ভারতীয় খেলোয়াড়দের মধ্যে কোহলিই প্রথম, যিনি আমফানে ক্ষতিগ্রস্তদের সমবেদনা জানিয়েছেন। বৃহস্পতিবার সকালে ভারতীয় ক্রিকেট দলের অধিনায়ক টুইট করেন, ‘‌পশ্চিমবঙ্গ এবং ওডিশায় আমফান সাইক্লোনে যাঁরা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন, তাঁদের প্রত্যেকের জন্য আমার সমবেদনা এবং প্রার্থনা রইল। ঈশ্বর এঁদের সবাইকে রক্ষা করুন।’‌ নিজের দল নিয়ে যেরকম সবসময় আশাবাদী থাকেন, তেমনই এই ধ্বংসের পরেও তিনি আশাবাদী। কোহলি এরপর টুইটারে লিখেছেন, ‘‌আশা করছি পরিস্থিতির দ্রুত উন্নতি হবে।’‌ শেষে করজোড়ে কোহলির হ্যাশট্যাগ, ‘‌প্রে ফর ওয়েস্ট বেঙ্গল’‌ (‌বাংলার জন্য প্রার্থনা করুন)‌।  বাংলা, তথা কলকাতার ঘরের ছেলে লিয়েন্ডার পেজও উদ্বিগ্ন। কলকাতার বেকবাগানের লিয়েন্ডার আমফান সাইক্লোন হওয়ার ২৪ ঘণ্টা যেতে না যেতেই টুইটারে সমবেদনা জানিয়েছেন ক্ষতিগ্রস্তদের। টুইট করে লিয়েন্ডার লিখেছেন, ‘‌ধ্বংসের ছাপ রেখে গেল আমফান সাইক্লোন। সবার মঙ্গল এবং সুরক্ষা কামনা করি।’‌ শুধু বাংলা নয়, আমফান তার ধংসের ছাপ রেখেছে প্রতিবেশী রাজ্য ওডিশাতেও। সেখানকার মানুষদের কথাও ভোলেননি লিয়েন্ডার। তিনি টুইটারে লিখেছেন, ‘‌পশ্চিমবঙ্গ এবং ওডিশা এই দুটি রাজ্যে যাঁরা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন, তাঁদের পাশে দাঁড়াচ্ছি।’‌ কোহলির স্ত্রী অভিনেত্রী অনুষ্কা শর্মাও সমব্যথী। তিনি টুইটারে লিখেছেন, ‘‌সাইক্লোন আমফানের ধ্বংসলীলা দেখে আর থাকতে পারছি না। ওডিশা এবং বাংলায় যাঁরা ক্ষতিগ্রস্ত, তাঁদের সবার জন্য আমার প্রার্থনা রইল। যাঁরা প্রাণ হারিয়েছেন, তাঁদের প্রত্যেকের পরিবারের প্রতি আমার সমবেদনা রইল।’‌‌

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});
জনপ্রিয়

Back To Top