সৌমিত্র কুমার রায়: শুটিং চলছে জোরকদমে। ভারতীয় ফুটবলের ‘সোনালি অধ্যায়’ নিয়ে তৈরি সিনেমার মুক্তির দিনও চূড়ান্ত। ২০২০ সালের ২৭ নভেম্বর মুক্তি পেতে পারে অজয় দেবগণ অভিনীত ‘ময়দান’। প্রথমে ঠিক ছিল প্রাক্তন জাতীয় ফুটবল কোচ সৈয়দ আবদুল রহিমের বায়োপিক তৈরি হবে। শুনে আনন্দিত হয়েছিলেন পিকে ব্যানার্জি, চুনী গোস্বামী, তুলসীদাস বলরাম, অরুণ ঘোষরা। যঁারা রহিম সাহেবের সরাসরি ছাত্র। এখন সিনেমার নাম ‘ময়দান’ হওয়ায় অসন্তুষ্ট পিকে, বলরামরা। বলরাম বলছেন, ‘রহিম সাহেব জীবনে কিছুই পাননি। তঁার নামে নাম হলে গোটা ভারত জানত ভারতীয় ফুটবলে তাঁর অবদান। নাম ‘ময়দান’ হলেও সিনেমার অনেকটা অংশ জুড়ে থাকবে রহিমের কীর্তি। যঁার হাত ধরে ভারত ১৯৫১ এবং ১৯৬২ সালে এশিয়ান গেমস জিতেছিল। ১৯৫৬ মেলবোর্ন অলিম্পিকের শেষ চারে পৌঁছেছিল।
পিকে–র কথায়, ‘আমি তো জানতাম রহিম সাহেবের নামেই নাম হবে। ওঁর কথা তরুণ প্রজন্ম সেভাবে জানে না। বায়োপিক হলে কিছুটা জানতে পারত।’ অরুণ ঘোষ বলছেন, ‘অত বছর আগে উনি ভারতীয় ফুটবল নিয়ে যা ভেবেছিলেন, কারও পক্ষে তা সম্ভব হত না। রহিম সাহেবের ময়দান নাম হলে দারুণ হত।’ রহিমের ভূমিকায় অভিনয় করবেন অজয় দেবগণ। চুনী, পিকে, বলরামদের চরিত্রে তরুণ অভিনেতারা। তথ্যের প্রয়োজনে বলরামকে মাঝেমধ্যেই ফোন করছে প্রোডাকশন টিম। বলরাম বলছিলেন, ‘ওরা যতটা পারছে, সবকিছু হুবহু তুলে ধরার চেষ্টা করছে। শুটিংয়ের জন্য নানা জায়গায় ঘুরছে। কলকাতায় একবার শুটিং হয়ে গেছে। আবার হবে। এবার অজয়ও আসবে। রহিম সাহেবের রোলে ওকে বেশ ভাল মানাবে।’  

‘ময়দান’ সিনেমার শ্যুটিংয়ে ব্যস্ত পরিচালক অমিত শর্মা এবং অভিনেতা অজয় দেবগন। ছবি: টুইটার

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});
জনপ্রিয়

Back To Top