আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ আজকাল লোকসভা বা বিধানসভা নির্বাচনকে ‘‌গণতন্ত্রের উৎসব’‌ অ্যাখ্যায় ভূষিত করা হয়। কিন্তু নির্বাচনকে প্রায় উৎসবে পরিণত করার পিছনে ছিল তৎকালীন মুখ্য নির্বাচন কমিশনার টিএন সেশনের একমাত্র ভূমিকা। রবিবার রাতে তামিলনাড়ুর আলওয়ারপেটে নিজের বাড়িতেই হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয় তাঁর। মৃত্যুকালে বয়স হয়েছিল ৮৬ বছর। ডিসেম্বরেই ৮৭–তে পড়তেন সেশন। তাঁর মৃত্যুর খবর টুইট করে দেশবাসীকে জানান তাঁর উত্তরসূরী তথা প্রাক্তন মুখ্য নির্বাচন কমিশনার এস ওয়াই কুরেশি। সেশনের বন্ধু কেকে নাম্বিয়ার জানালেন, ‘‌হঠাৎই সব শেষ হয়ে গেল। শনিবার রাতে আমরা কিছুক্ষণ গল্প করি। রবিবার নৈশাহার সেরে রাত ৯.‌৪৫ মিনিট ঘুমতে যান সেশন। হঠাৎ হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে তৎক্ষণাৎ মৃত্যু হয় তাঁর।’‌ শেষ সময় তাঁর পাশে ছিলেন তাঁর দীর্ঘ দিনের পরিচারকরাই। কারণ ২০১৮–র মার্চে স্ত্রী জয়লক্ষ্মীর মৃত্যুর পর একাই থাকতেন সেশন। তাঁরা নিঃসন্তান ছিলেন। 
সেশনের মৃত্যুর খবর পেয়ে রবিবার রাতেই টুইট করে শোকজ্ঞাপন করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। টুইট করে শ্রদ্ধা জানিয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি লিখেছেন, স্বচ্ছ নির্বাচনের জনক টিএন সেশন। সোমবার সকালে টিডিপি সুপ্রিমো চন্দ্রবাবু নাইডু তাঁর প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে বলেছেন, নির্বাচন কমিশনকে আধুনিকরূপে সংস্কার করেছিলেন সেশন। শোকজ্ঞাপন করেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ সহ সব রাজনৈতিক দলের নেতামন্ত্রীরাই।
১৯৩২ সালের ১৫ ডিসেম্বর তামিলনাড়ুর পালাক্কড় জেলার তিরুনেল্লাইয়ে জন্ম তিরুনেল্লাই নারায়ণ আইয়ার সেশনের। তামিলনাড়ু ক্যাডারের ১৯৫৫ সালের আইএএস সেশন বিভিন্ন প্রশাসনিক বিভাগে কাজ করেছিলেন। ১৯৮৯ সালে কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার সচিব হয়েছিলেন। কাজ করেছিলেন ইসরো–তেও। ১৯৯০–র ১২ ডিসেম্বর থেকে ১৯৯৬–র ১১ ডিসেম্বর পর্যন্ত মুখ্য নির্বাচন কমিশনার ছিলেন সেশন। ১৯৯৬ সালেই সরকারি পরিষেবায় অসাধারণ কাজের জন্য র‌্যামন ম্যাগসাইসাই পুরস্কার পাওয়ার সময় তিনি বলেছিলেন, ‘‌আমি ব্যক্তিগতভাবে এই পুরস্কারকে একটা চ্যালেঞ্জ হিসেবে নিচ্ছি যাতে আমার শেষ শক্তি পর্যন্ত মানবতার মূল্যবোধ, স্বাধীন চিন্তাধারার উন্নয়নের জন্য কাজে লাগাতে পারি।’‌ ম্যাগসাইসাই পুরস্কারকে সেশন বলেছিলেন, ‘‌গণতন্ত্রের প্রতি শ্রদ্ধার উপহার’।‌
আজকের যে ভোটের সঙ্গে আধুনিক প্রজন্ম পরিচিত, সেই স্বচ্ছ নির্বাচন প্রক্রিয়ার জনক ছিলেন সেশন। রাজনীতিকদের প্রশাসনিক বল্গা পরিয়েছিলেন তিনি। মৃত্যুযন্ত্রণাকেও তুড়ি মেরে উড়িয়ে দিয়ে গেলেন।   

জনপ্রিয়

Back To Top