আজকাল ওয়েবডেস্ক: ‌কথায় আছে, যে রাঁধে সে চুলও বাঁধে। এই প্রবাদটাই সত্যি করে দেখালেন ঝাঁসির এক পুলিস কনস্টেবল অর্চনা জয়ন্ত। টুইটারে তাঁর একটি ছবি ভাইরাল হয়েছে। যেখানে দেখা যাচ্ছে, নিজের ছ’‌মাসের শিশুকে দেখভালের পাশাপাশি অর্চনা নিজের থানার কাজও চালিয়ে যাচ্ছেন। 
রবিবার সোশ্যাল মিডিয়ায় অর্চনার এই ছবি ভাইরাল হতেই নেটিজেনরা তাঁদের প্রতিক্রিয়া দিতে শুরু করেন। মহিলা পুলিসদের যাতে আরও ভাল সুযোগ–সুবিধা দেওয়া হয়, তা নিয়েও অনেকে মন্তব্য করেন। এই ছবি ভাইরাল হওয়ার একঘণ্টার মধ্যেই উত্তরপ্রদেশের পুলিস প্রধান টুইট করে জানান যে, পুলিস স্টেশনের মধ্যে শিশুদের দেখভাল করার ব্যবস্থা রাখা হবে। উত্তরপ্রদেশের এক শীর্ষ পুলিস আধিকারিক রাহুল শ্রীবাস্তব ওই মহিলা কনস্টেবলের ছবি টুইটারে পোস্ট করে লেখেন, ‘‌এই দেখুন মা পুলিস অর্চনা, যিনি ঝাঁসির কোতওয়ালি থানায় কনস্টেবলের কাজ করেন। তিনি তাঁর মায়ের দায়িত্বের পাশাপাশি দপ্তরের কাজও সামলাচ্ছেন। তিনি স্যালুট পাওয়ার যোগ্য।’‌ ছবিতে দেখা গিয়েছে, অর্চনা তাঁর ছ’‌মাসের কন্যা সন্তান অনিকাকে ডেস্কে ঘুম পাড়িয়ে রেখেছেন এবং পুলিস স্টেশনের কাজ করছেন। তাঁর উর্ধ্বতন আধিকারিক অর্চনার এই দুই রূপ দেখে তাঁকে পুরস্কার হিসাবে ১০০০ টাকা দিয়েছেন বলে জানা গিয়েছে। ২০১৬ সালে অর্চনা পুলিসে যোগ দেন। ছ’‌মাসের অনিকা ছাড়াও তাঁর দশ বছরের একটি ছেলেও রয়েছে। অর্চনার স্বামী হরিয়ানার গুরুগ্রামে গাড়ির একটি সংস্থায় কাজ করেন। ওই মহিলা কনস্টেবল একাই কাজ সামলান এবং দুই সন্তানের দেখভালও করেন।  
টুইটারে এই ছবি দেখার পর অনেকেই দাবি তুলেছেন, পুলিস থানার মধ্যে মহিলাদের অন্যান্য সুযোগ–সুবিধার বন্দোবস্ত করা হোক। সেই প্রতিক্রিয়া দেখার পরই থানায় ক্রেস থাকার ব্যবস্তার কথা ঘোষণা করে উত্তরপ্রদেশ পুলিস।  

 

 

 

 

অর্চনা জয়ন্তের ডেস্কে ঘুমোচ্ছে তাঁর সন্তান।   

জনপ্রিয়

Back To Top