আজকাল ওয়েবডেস্ক: ট্রেনের শৌচাগারের ভিতর মিলল এক পরিযায়ী শ্রমিকের পচাগলা দেহ। ঘটনাটি ঘটেছে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় উত্তর প্রদেশের ঝাঁসি স্টেশনে। ওই ট্রেনটি একদল পরিযায়ী শ্রমিককে তাঁদের গন্তব্যে পৌঁছে দিয়ে ফেরার পর ট্রেন সাফাইয়ের সময় রেলের এক সাফাইকর্মী শৌচাগারের ভিতর দেহটি দেখতে পান। পরে পুলিশ দেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তে পাঠায়। পুলিশ সূত্রে খবর, মোহনললাল শর্মা নামে ৩৮ বছরের ওই যুবকের বাড়ি উত্তর প্রদেশেরই বস্তি জেলায়। তিনি মুম্বইয়ে দিনমজুর ছিলেন। লকডাউনে কাজ হারানোর পর গত ২৩ তারিখ অন্য শ্রমিকদের সঙ্গে মোহনলাল ঝাঁসি পৌঁছন। সেখান থেকে বস্তি পৌঁছনোর আশায় জেলা প্রশাসনের দ্বারস্থ হলে প্রশাসন তাঁদের গোরখপুরের ট্রেনে তুলে দেয়। তবে গোরখপুরই ওই ট্রেনটির শেষ স্টপেজ ছিল নাকি ট্রেনটি আন্তঃরাজ্য সীমানা পেরিয়ে বিহার চলে গিয়েছিল সেখান থেকে উত্তর প্রদেশের বাসিন্দা শ্রমিকদের ফেরত আনতে তা নির্দিষ্টভাবে এখনও জানানো হয়নি রেলের তরফে। বুধবার ট্রেন ঝাঁসি পৌঁছয়। বৃহস্পতিবার সাফাইয়ের সময় মোহনলালের দেহ উদ্ধার হয়। মোহনলালের এক আত্মীয়, কানহাইয়ালাল বললেন, ঝাঁসি পুলিশ তাঁদের গ্রামের পঞ্চায়েত প্রধানকে ফোনে ঘটনাটি জানায় এবং বলে মোহনলালের কাছে ২৮০০০ টাকা, কিছু বই এবং একটি সাবান ছিল। পুলিশ জানিয়েছে ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পেলেই বোঝা যাবে মোহনলালের মৃত্যুর কারণ। ময়নাতদন্ত ছাড়া তাঁর দেহের কোভিড–১৯ পরীক্ষাও হবে এবং তারপর তাঁর দেহ পরিবারের হাতে তুলে দেওয়া হবে বলে জানিয়েছে পুলিশ। 
 

জনপ্রিয়

Back To Top