আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ আবারও ভারতের সোশ্যাল মিডিয়ায় ভেসে উঠেছেন ব্রিটিশ কমেডিয়ান জন অলিভার। সোমবার থেকে দেশের সব কটি সোশ্যাল মিডিয়ায় ট্রেন্ড করছে তাঁর সংক্রান্ত খবর। সপ্তাহ দুয়েক আগে তাঁর ব্যঙ্গাত্মক সাপ্তাহিক শো ‘‌লাস্ট উইক টুনাইট’‌–এ সিএএ ইস্যুতে মোদিকে একহাত নিয়েছিলেন জন। সেই এপিসোডটি ডিজনির মালিকানাধীন অনলাইন স্ট্রিমিং প্ল্যাটফর্ম হটস্টার আপলোড করেনি সম্প্রচারের জন্য। এই ঘটনায় অত্যন্ত ক্ষুব্ধ জনের অনুমান, এর পিছনে ভারত সরকারের হাত আছে। যদিও এর কোনও প্রত্যক্ষ প্রমাণ তাঁর হাতে নেই বলে জানিয়েছেন তিনি। জন মনে করছেন, ‘‌আমরা আশা করতে পারি হটস্টার নিজস্ব সেনসরশিপ অর্জন করবে। তবে এটা ভাল নয়।’‌ অনলাইন স্ট্রিমিং এই প্ল্যাটফর্মটি বেশ কিছুদিন ধরেই এই কাজ করে চলেছে বলে অভিযোগ করেছেন জন।
সপ্তাহ দুয়েক আগের ওই এপিসোডে সিএএ নিয়ে ১৮ মিনিটের ব্যাখ্যায় জন মোদির বিরুদ্ধে অভিযোগ করেছিলেন এই বলে যে সিএএ এনে ধর্মের ভিত্তিতে ভারতে বিভাজন করছেন মোদি। টিভি স্ক্রিনের একপাশে তাজমহল এবং অন্যপাশে মোদির ছবি রেখে সেই দিকে উদ্দেশ্য করে জন বলেছিলেন, ‘‌ভালবাসার চিরন্তন প্রতীকের এই আবাসস্থল ‌ঘৃণার অস্থায়ী প্রতীকের থেকে অনেক বেশি কিছু আশা করে।’
জনের ওই এপিসোড সম্প্রচারিত হতেই ঝড় উঠেছিল ভারতের সোশ্যাল মিডিয়ায়। এক পক্ষ জনের পাশে দাঁড়ায়। আরেক পক্ষ ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে নাক গলানোর জন্য তাঁর সমালোচনা করে।  
 

জনপ্রিয়

Back To Top