উদ্দালক ভট্টাচার্য  
‘আপনি বাজারে যাচ্ছেন?‌
‌ না না, আমি বাজারে যাচ্ছি।
‌ ও, আমি ভাবলাম আপনি বাজারে যাচ্ছেন।’‌
দুই বধিরের গল্প বলতে গিয়ে এই উদাহরণ অনেকেই দেন। কিন্তু ভাবুন তো একটা গোটা শহর প্রায় বধির হওয়ার দশায়!‌ কেমন হবে তার চেহারাটা?‌ বাস্তবিক দুনিয়ায় না হলেও ফেসবুকে শেষ কয়েকদিনে বেড়ে গিয়েছে কানে খাটো ‘‌বংশীধর’‌দের সংখ্যা। তাঁরা মাঝে মাঝেই কম শুনছেন!‌ তাঁদের ফেসবুক প্রোফাইল দেখে তো তেমনই মনে হচ্ছে।
কয়েকদিন আগে সলমন খানের নতুন ছবি, ‘‌রেস থ্রি’-‌র একটি সংলাপ নিয়ে মাতামাতি শুরু হয়েছিল ফেসবুকে। "Our business is our business, none of your business,"‌,‌ এই ‌সংলাপের তোড়ে ভরে গিয়েছিল সোশ্যাল মিডিয়া। সেই ট্রেন্ড কাটতে না কাটতেই শুরু হয়েছে নতুন ট্রেন্ড। আর সেই ট্রেন্ডে দেখা যাচ্ছে, লোকে বলছে এক, আর প্রোফাইলের মালিক শুনছে আর এক। রাজনৈতিক মত থেকে খেলা, প্রেম, সব কিছুই উঠে আসছে এই ট্রেন্ডে। দু’‌একটা উদাহরণ দেখলে বিষয়টি আরও খোলসা হবে। ফেসবুকে একজন লিখেছেন, ‘‌তুমি বললে ভালোবাসা, আমি শুনলাম কলকাতা’‌। আবার একজন লিখেছেন ‘‌তুমি বললে মন্দির, আমি শুনলাম আসিফা’‌। এমনই নানা কথা, যা কেউ বলছে এক, আর শ্রোতা শুনছেন আর এক। 
ফেসবুকে এই ট্রেন্ড একেবারে ওয়াই জেনারেশনের হলেও এই নিয়ে নানা মজার গল্প কিন্তু প্রচলিত। তেমনই একটি কথোপকথন আগে উল্লেখ করেছি। কিন্তু এই ট্রেন্ডের থিওরিটা কী?‌ এর আগেও ‘‌ওরম মনে হয়’ বাক্যবন্ধটি বিপুল জনপ্রিয়তা পেয়েছিল ফেসবুকে। মিমের ছড়াছড়ি,  এই সংলাপ হাসি ঠাট্টার যোগান দেওয়ার কাজ করেছিল কিছুদিন। 
সাইবার বিশেষজ্ঞরা এখনও ট্রেন্ডিংয়ের কোনও থিওরি বলতে পারেন না। বলেন, কোন সিনেমা হিট হবে, কোন সিনেমা ফ্লপ, তা বলা যায় না, তেমনই ফেসবুকে হঠাৎ কী ভাইরাল হবে তাও বলা সম্ভব নয়। তবে আপাতত কানের রোগে ভোগা শহর দ্রুত সেরেও উঠবে বলে তাঁদের মত। কারণ, এই ধরণের ট্রেন্ড বেশিদিন টেকে না। 
তাই মনে হচ্ছে, আপাতত কয়েকদিন কানে কম শোনা নিয়ে বেজায় খুশি থাক কলকাতা। কিন্তু সত্যিই কী শহর এখন আর আগের মতো শুনতে পায়?‌ কয়েকদিন আগে বাঘাযতীন স্টেশনে ঘণ্টার পর ঘণ্টা পড়েছিলেন এক বৃদ্ধা। তাঁর নিঃশব্দ আর্তনাদ কেউ শুনতে পায়নি। এমনকী, যেদিন দম্ভ ভরে একদল মানুষ মেট্রো স্টেশনে মারপিট করেছিলেন। এক যুগলকে পিটিয়ে ছিলেন, সেদিনও এই শহর শুনতে পায়নি। পরে তা নিয়ে কথা হলেও, সেদিন কিন্তু মার খেতে হয়েছিল যুগলকে। তাই অনেকেই ঠাট্টা করে বলছেন, কানের রোগটা অনেকদিন ধরেই আছে। শুধু সময় মতো সে রোগ ফুটে ফুটে ওঠে। কখনও কম শুনতে পাওয়ার অপরাধে খাটের তলায় লুকিয়ে পড়ে শহর, কখনও আবার জাহির করে ফেসবুকে। আমরা জানি না কবে কানের রাস্তা সুগম হবে। কবে এই শহর আবার কান খাড়া করবে শুনবে সব কিছু। অস্ত্র নিয়ে মিছিল, কানে কানে পাচার করে ধর্মীয় উত্তেজনা ছড়িয়ে দেওয়ার ছক কবে ঠিকঠিক শুনে ফেলবে শহর। আর বানচাল করে দেবে ছক। চিনিয়ে দেবে আততীয়দের। ভরসা করতে আপত্তি তো নেই। ভরসা আছে কলকাতায়। ভরসা আছে, দ্রুত কানের রোগ কাটিয়ে ফেলবে শহর। আর চিনে ফেলবে ধর্মের নামে হিংসা ছড়িয়ে দেওয়া গুণ্ডাদের। তখন, রাম রহিমে ভাগ করতে এলে সটান সে কথা উঠবে শহরের কানে। আর তারপর, শাস্তি হবে ষোলআনা। তাই এখন থেকেই সাবধান!‌ মানে, যাঁদের সাবধান হওয়ার কথা। আর তার আগে পর্যন্ত, এমনই চলুক ফেসবুকে!‌ যেমন এখন মোদি বললে অনেকেই শুনছেন অন্য কিছু। ‌

জনপ্রিয়

Back To Top