আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ সংঘর্ষের পাঁচদিন পর পাকিস্তানি সেনাবাহিনীর অস্ত্রাগার গুঁড়িয়ে দেওয়ার ড্রোন ফুটেজ প্রকাশ করল সেনাবাহিনী। ফুটেজে দেখা যাচ্ছে প্রথমে বোফোর্স বন্দুকের নিশানার শিকার হওয়ার পর পাক অস্ত্রাগারে হচ্ছে পরপর বিস্ফোরণ। সেনা সূত্রে খবর, নিয়ন্ত্রণরেখা বরাবর পাক জঙ্গিদের লঞ্চ প্যাড, বন্দুকের অবস্থান এবং অস্ত্রাগার গুঁড়িয়ে দেওয়া হয়েছিল ওই অভিযানে। বিনা প্ররোচনায় সংঘর্ষবিরতি লঙ্ঘন করে পাক সেনা জম্মু–কাশ্মীরের কুপওয়ারার কেরান সেক্টরে গোলাগুলি ছাড়ার পরই ভারতীয় বাহিনী প্রত্যাঘাত করেছিল।

কুলগামে গুলি ছুড়ে পালাল জঙ্গিরা, পুঞ্চে পাক গোলা

গত এক তারিখ কুপওয়ারার রান্ডোরি বেহাকে পাঁচজন পাক অনুপ্রবেশকারীকে থামতে বললে তারা গুলি চালায় সেনাবাহিনীর উপর। দ্রুত জবাব দেয় বাহিনীও। কিন্তু নিয়ন্ত্রণরেখা পেরিয়ে অনুপ্রবেশকারীরা ঢুকে পড়ে গা ঢাকা দিলে তাদের সন্ধান হারিয়ে ফেলে সেনা। ফের তিন তারিখে তাদের সন্ধান পায়। তারপর সেনাবাহিনীর গুলির লড়াই শুরু হয় জঙ্গিদের সঙ্গে। পাঁচ তারিখ নাগাদ বিশেষ বাহিনী পৌঁছয় ঘটনাস্থলে। টানা কয়েকদিন ধরে চলা গুলির লড়াইয়ে চার জঙ্গি নিকেশ হয়েছিল। পরে নিয়ন্ত্রণরেখা পেরনোর সময় খতম হয় পঞ্চম জঙ্গিও। তবে সংঘর্ষে শহিদ হন সাব ইন্সপেক্টর সঞ্জীব কুমার, হাবিলদার দাবেন্দ্র সিং, তিনজন সিপাই বালকৃষ্ণন, অমিত কুমার এবং ছত্রপাল সিং।

জনপ্রিয়

Back To Top