আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ কথায় আছে, মানুষের সবচেয়ে কাছের বন্ধু কুকুর। পুরনো এই কথাটি এখনও যে কতটা সত্যি, সম্প্রতি একটি ঘটনা ফের সেটা প্রমাণ করে দিল। মালিক হাঁটতে পারেন না। হুইলচেয়ারে বসেই কাটে দিনের বেশিরভাগ সময়। এই অবস্থায় এক জায়গা থেকে অন্য জায়গা যেতে ওই ব্যক্তির ভরসা তাঁর পোষ্য কুকুরটিই। ঘটনাটি ফিলিপিন্সের। ড্যানিলো অ্যালারকন নামে ৪৬ বছর বয়সি ওই ব্যক্তি এক বছর আগে বাইক দুর্ঘটনার কবলে পড়েন। মেরুদণ্ডে মারাত্মক চোট পান। হারিয়ে ফেলেন হাঁটার শক্তিটুকুও। শেষপর্যন্ত হুইলচেয়ারে করেই এক জায়গা থেকে অন্যত্র যাতায়াত করতে বাধ্য হন। আর একাজে মনিবকে সাহায্য করে ড্যানিলোর–র পোষ্য ডিগং। গত ৩০ জুন নিজের ফেসবুক প্রোফাইলে ডিগং–এর কাণ্ডকারখানার ভিডিওটি পোস্ট করেন মিসিস ফেইথ এল রেভিলা নামে এক ছাত্রী।  সঙ্গে লেখেন, ‘‌এই দৃশ্য দেখতে পাওয়া অনেক সৌভাগ্যের ব্যাপার। নিজের অনুভূতিকে ব্যক্ত করার কোনও ভাষা খুঁজে পাচ্ছি না আমি।’ তাঁর পোস্ট করার পরই মুহূর্তের মধ্যে ভিডিওটি ভাইরাল হয়ে যায়। মালিকের প্রতি পোষ্যের এই ভালবাসা দেখে অনেকেই ডিগং–এর তারিফ করেন। অনেকে কাছে সে এখন প্রকৃত ‘‌হিরো’।

জনপ্রিয়

Back To Top