আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ রাখে হরি মারে কে!‌ সত্যিই তাই হল কলম্বিয়ায়। সন্তানসম্ভবা অবস্থাতেই কোভিড আক্রান্ত ৩৬ বছরের তরুণী। শ্বাসকষ্ট প্রচণ্ড বেড়ে যায়। কোমায় চলে যান। এসবের মধ্যেই সুস্থ সন্তানের জন্ম দিলেন। তাও নির্ধারিত সময়ের ১৪ সপ্তাহ আগে। মাও ধীরে ধীরে সুস্থ হয়ে উঠেছেন। এখন দু’‌জনেই বাড়ি ফেরার অপেক্ষায়।
চিকিৎসক পলা ভেসালকেজ জানালেন, ডায়না অ্যাঙ্গোলার অবস্থা দেখে বেশ ভয়ই পেয়েছিলেন তাঁরা। ও রকম শারীরিক অবস্থায় অনেকেই আর বাঁচেন না। ডায়নার ঘটনা সত্যিই মিরাক্‌ল। 
ডায়নার একটি মেয়ে রয়েছে। ১৫ মে প্রচণ্ড জ্বর নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন তিনি। শ্বাসকষ্ট এতটাই বেড়ে যায়, যে চিকিৎসকরা বাধ্য হয়ে কোমায় পাঠিয়ে দেন তাঁকে। এদিকে সন্তান প্রসবের সময় আসতে তখনও ঢের দেরি। এই অবস্থায় দিন কয়েক ৪৫ ডিগ্রি কোণে রেখে দেওয়া হয় তাঁকে। এমনিতে নিউমোনিয়া হলে বিছানায় শুয়ে রাখাই নিয়ম। কিন্তু ডায়না অন্তঃসত্ত্বা বলে এই ব্যবস্থা। 
শেষ পর্যন্ত জটিল সি সেকশন করেন চিকিৎসকরা। এই অবস্থাতেই সন্তানের কিন্তু কোভিড সংক্রমণ ধরা পড়েনি। যদিও সময়ের অনেক আগে জন্মানোয় সমস্যা ছিল। শ্বাস নিতে পারছিল না সে। আধুনিক ইনকিউবেটরে রাখা হয় শিশুটিকে। এখন মা এবং সন্তান দু’‌জনের ভাল আছেন। ডায়না ছেলের নাম রেখেছেন জেফারসন। 
২৫ মার্চ থেকেই কলম্বিয়ায় কোভিডের জেরে লকডাউন চালু হয়েছে। ডায়নার পরিবার জানিয়েছে, লকডাউনে যথেষ্ট নিয়ম মেনেই চলেছেন তিনি। তাও কীভাবে হল সংক্রমণ, জানা যায়নি। কলম্বিয়ায় এখন করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৮০ হাজার। মৃত্যু হয়েছে ২,৬০০ জনের।  লাতিন আমেরিকার দেশগুলোর মধ্যে সংক্রমণের নিরিখে কলম্বিয়া পঞ্চম। মৃত্যুর নিরিখে ষষ্ঠ। 

জনপ্রিয়

Back To Top