আজকাল ওয়েবডেস্ক: এক ভাবে বলা যায় র‌্যাম্পে বিপ্লব ঘটালেন তিনি। মিয়ামি ফ্যাশন শোয়ে নিজের পাঁচ মাসের শিশুকন্যাকে স্তন পান করাতে করাতে র‌্যাম্পে হাঁটলেন মারা মার্টিন। ফ্যাশন শোয়ের তীব্র বাজনা থেকে শিশুকে রক্ষা করতে মেয়ের কানে একটি ছোট হেডফোন পরিয়ে দিয়েছিলেন তিনি। তিনি নিজে পরেছিলেন একটি সোনালি রঙের সুইমস্যুট। 
মারার এই বিপ্লবিক পদক্ষেপ মুহুর্তে ভাইরাল হয়ে যায় সোশ্যাল মিডিয়ায়। মডেলের এই কাজ দেখে একদিকে যেমন মুগ্ধ হয়েছেন সেখানে উপস্থিত অসংখ্য দর্শক। অন্যদিকে এই নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় তাঁকে ট্রোলও করেছেন এক শ্রেণির সমালোচক।

 
মিয়ামির এই ফ্যাশন শোয়ে যে ১৬ জন ফাইনালিস্টকে বেছে নেওয়া হয়েছিল তাঁদের মধ্যে মারা মার্টিন ছিলেন একজন। ইনস্টাগ্রামে নিজের কাজের ছবি মারা পোস্ট করে লিখেছেন, ‘‌ আমি একজন মা হিসেবেই এই কাজ করেছি। এর মধ্যে অসাধারণ কোনও বিষয় নেই।’‌‌ 
এই কাজ করে প্রশংসাই বেশি পেয়েছেন মারা। নিন্দুকরা আবার কটাক্ষ করে লিখেছেন, বাড়তি নজর টানতেই এই কাজ করেছেন মডেল। 
কয়েকদিন আগে এমটি মালায়লম পত্রিকায় স্তন পান করানো অবস্থায় এক ভারতীয় মডেলের ছবি ঘিরেও বিতর্ক শুরু হয়েছিল। এবারও যে হবে না তা বলাই বাহুল্য। সমালোচনায় অবশ্য কান দিতে নারাজ মারা মার্টিন। 

জনপ্রিয়

Back To Top