আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ সোশ্যাল মিডিয়ায় একটা ছবি ভাইরাল হয়েছে। সেটা হল– আন্টার্কটিকার বরফে লাল রক্তের রঙ দেখা গিয়েছে। বরফ থেকে যেন বেরিয়ে আসছে তাজা রক্ত। চারপাশে লাল লাল ছোপ। এই ভয়ঙ্কর ছবি শেয়ার করেছেন ইউক্রেনের বিজ্ঞানীরা। ইউক্রেনের শিক্ষা ও বিজ্ঞান মন্ত্রকের ফেসবুক পেজে সেই ছবি শেয়ার করা হয়েছে। যা নিয়ে এখন জোর চর্চা শুরু হয়েছে। আন্টার্কটিকার এই বরফকে ‘ব্লাড স্নো’ বলা হচ্ছে।
কেন এই লাল রঙ?‌ এই ধরনের বরফ দেখা যাচ্ছে আন্টার্কটিকার গ্যালিন্ডেজ আইল্যান্ডে। তবে এতে ভয় পাওয়ার কিছু নেই। এটি আসলে এক প্রাকৃতিক কারণেই হয়েছে। ‘ক্ল্যামাইডোমোনাস নিভালিস’ নামে এক ধরনের শ্যাওলার জন্যই এই লাল রঙ দেখা যাচ্ছে বরফে। প্রবল ঠাণ্ডাতেও বেঁচে থাকে এই শ্যাওলা। পার্বত্য অঞ্চলে এই শ্যাওলা দেখা যায়। শ্যাওলার ক্লোরোপ্লাস্টে রয়েছে ‘ক্যারোটিনয়েড’। তার জেরেই এই লাল রঙ হয়। 
কী করে এমন রঙ হয়?‌ জানা যাচ্ছে, এই ধরনের শ্যাওলা যখন প্রচুর পরিমাণে সূর্যের আলো পায় তখন এই ‘ক্যারোটিনয়েড’ তৈরি হয়। আন্টার্কটিকায় এখন গরমকাল। তাই শ্যাওলাগুলো লাল হয়ে যাচ্ছে। এই লাল রঙের একটা খারাপ দিক হল–এই শ্যাওলা বেশি থাকলে বরফ সূর্যের আলো প্রতিফলিত করতে পারে না। দ্রুত বরফ গলে যায়। উষ্ণায়ণের পথ প্রশস্ত করে এই রক্ত রঙের শ্যাওলা। তবে গন্ধ অবিকল তরমুজের মতো।

জনপ্রিয়

Back To Top