আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ আপনি কি জানেন কেন কম্পিউটারের কিবোর্ডের অক্ষরগুলো অবিন্যাস্ত বা অগোছালো থাকে? আসলে ‌কম্পিউটারের কিবোর্ড টাইপরাইটারের কিবোর্ডের অক্ষর বিন্যাসের মতোই। ১৮৭৪ সালে সেই বিন্যাস তৈরি করেছিলেন ক্রিস্টোফার ল্যাথাম শোলস। যা শুরু হয় Q–W–E–R–T–Y, এই ছয়টি অক্ষর দিয়ে। ওই অক্ষর বিন্যাসকে সেই সময়ে বলা হত রেমিংটন ওয়ান। ক্রিস্টোফার বলেছিলেন, কিবোর্ডের অক্ষর বিন্যাসের উপর নির্ভর করে টাইপরাইটারে লেখার স্পিড কেমন হবে। 
কম্পিউটার প্রথম তৈরি হয়েছিল উনিশ শতকে। নির্মাতা বিখ্যাত গণিতজ্ঞ চার্লস ব্যাবেজ। তিনি যে কম্পিউটার তৈরি করেছিলেন, তা আকারে অনেক বড় ছিল। কাজের ক্ষেত্রে বেশকিছু সমস্যাও দেখা দিয়েছিল তাতে। তারপর থেকে নানারকম পরিবর্তন এসেছে কম্পিউটারের গঠনে। ব্যবহারে। দৈর্ঘ্যে প্রস্থে যত ছোট হয়েছে, তত তাতে কাজের গতি বেড়েছে। কিন্তু বাড়ি বা অফিসে কাজের কম্পিউটারগুলিতে এখনও ক্রিস্টোফারের তৈরি অক্ষর বিন্যাস ব্যবহৃত হয়ে আসছে। কারণ– A-B-C-D পাশাপাশি থাকলে, লেখার ক্ষেত্রে আমাদের খুব সমস্যা হত। আমাদের হাতের আঙুল ব্যথা হয়ে যেত কাজ করতে করতে। অক্ষর বিন্যাস এলোমেলো বলেই আমরা অনেকক্ষণ ধরে কাজ করতে পারি। বেশিরভাগ সময়ে ভাওয়েল কন্সোন্যান্ট পাশাপাশি রাখা হয়। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, স্পিড বাড়াতে আর লেখার ক্লান্তি দূর করতেই মূলত অক্ষরগুলো এলোমেলোভাবে সাজানো থাকে।

জনপ্রিয়

Back To Top