আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ প্রতিটি ট্রেনের পিছনে ক্রশ চিহ্ন বা ইংরেজি হরফে X লেখা থাকে কেন‌‌?‌ এই লেখাটির অর্থই বা কি?‌ এই প্রশ্ন যাত্রীদের মনে আনাগোনা করতেই পারে। শুধু কখনও ভেবে দেখা হয়নি ট্রেনের পেছনে এই X চিহ্নটির কি কাজ? ব্রিটিশ আমলে চালু হওয়া ট্রেন আজ আমাদের দেশে এবং বিশ্বের বিভিন্ন দেশে সাধারণ জনগণের কাছে অপরিহার্য।
ভারতে প্রত্যেকদিন প্রায় ১ কোটি মানুষ ট্রেনে করে যাতায়াত করেন। লোকাল ট্রেন ছাড়াও দূর–দূরান্তে যেতে এক্সপ্রেস ট্রেনের সাহায্য নেওয়া হয়ে থাকে। ট্রেনের পেছনের এই X–চিহ্নটি সকলেরই চোখে পড়েছে, বিশেষত দূরপাল্লার ট্রেনে এই চিহ্নটি সকলেই দেখেছে। ট্রেনের পেছনে X–চিহ্ন কেন থাকে? রেল দপ্তর সূত্রে জানা গিয়েছে, ট্রেনের শেষে এই চিহ্নটি ব্যবহার করা হয় যাত্রী সুরক্ষার কথা ভেবে। খবরের কাগজে হামেশাই দেখা যায় ‘‌কোনও ট্রেনের ২টি বগি লাইনচ্যুত হয়েছে’‌। এই ঘটনাটির কথা ভেবেই চিহ্নটির ব্যবহার শুরু হয়েছে।
ট্রেনের পেছনে লেখা X–লেখার উদ্দেশ্য হল, এটা ট্রেনের শেষ বগি। অনেক সময় ট্রেনের বগি লাইনচ্যুত হয়ে যায়। আর ট্রেন থেকে আলাদা হয়ে যায়। আবার অনেক সময় ট্রেনের মাঝখানে লাগানো হুক ভেঙে যায়। যার ফলে ট্রেনের সেই বগি পথেই থেমে যায়। এমনটা হওয়ার কারণে, অনেক মানুষের শরীরে মারাত্মক আঘাত লেগে থাকে। যখন ট্রেন একটি স্টেশন থেকে ছাড়ে তখন স্টেশন মাস্টার ট্রেনকে শেষ পর্যন্ত দেখে। যদি ট্রেন থেকে X–এর নিশান না দেখা যায়, তখন সে তৎক্ষণাৎ রেল বিভাগকে খবর দেন। ইমার্জেন্সি ঘোষণা করে দেওয়া হয়। লাইনের উপর আসা সকল ট্রেনকে রুখে দেওয়া হয়। 
দিনেরবেলায় এটা পরিষ্কারভাবে দেখা যায়। কিন্তু রাতের সময় X–কে দেখা অনেক কঠিন হয়ে পরে। তার জন্য রাতের ট্রেনগুলোর শেষ বগি দেখার জন্য X–এর নিচে লাল রঙের আলো লাগিয়ে দেওয়া হয়। যেটা টিপ টিপ করে  জ্বলতে থাকে। বোঝা যায় যে, এই ট্রেনটি সম্পূর্ণ হয়েছে। আর মাঝখানে ভাঙা নেই। যাত্রীদের কথা চিন্তা করেই রেল কর্তৃপক্ষ এই ব্যবস্থা করেছে।

জনপ্রিয়

Back To Top