সুকমল শীল: বাঙালি পড়ুয়া তৈরি করল বিক্রম ল্যান্ডারের ‘‌মডিফায়েড’‌ মডেল। পালকের মতো ভেসে নামার বদলে কি চাঁদের রুক্ষ পাথুরে মাটিতে আছড়ে পড়েছিল বিক্রম ল্যান্ডার?‌ জানা যায়নি। চাঁদের কক্ষপথে প্রদক্ষিণ করা নাসার মহাকাশযান ‘লুনার রিকনাইস্যান্স অরবিটার (এলআরও)’ বহু চেষ্টা চালিয়েও খুঁজে পায়নি বিক্রমকে। তার ভেতরে থাকা প্রজ্ঞান রোভারটি কাজ করেনি। একাদশ শ্রেণির পড়ুয়া আবির ঘোষের মতে, আরও আধুনিক হাইড্রোলিক সিস্টেম থাকলে হয়তো সফল হত চন্দ্রযান ২–এর অভিযান। বিক্রম ল্যান্ডারের আরও আধুনিক মডেল তৈরি করে সবাইকে তাক লাগিয়ে দিয়েছে সে। সায়েন্স সিটিতে আন্তর্জাতিক বিজ্ঞান প্রদর্শনীতে তার তৈরি মডেল দেখতে ভিড় জমাচ্ছেন প্রচুর মানুষ। 
মহাকাশ গবেষণায় রোভার খুবই গুরুত্বপূর্ণ। ১৪ দিনের ‘‌মিশন লাইফ’‌ নিয়ে চাঁদে গিয়েছিল বিক্রম। কিন্তু চাঁদের বুকে নামার কয়েক মুহূর্ত আগে তার সঙ্গে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায় ইসরোর বিজ্ঞানীদের। এর পরই ল্যান্ডারের আরও আধুনিক‌ মডেল তৈরির কাজ শুরু করে বর্ধমানের শক্তিগড়ের বরশুল সিডিপি স্কুলের একাদশ শ্রেণির মেধাবী পড়ুয়া আবির। তিন মাস সময়ের মধ্যে তৈরি হয় বিক্রম‌ মডেল। এ বছর বিজ্ঞান উৎসবের প্রদর্শনীতে সে নিয়ে এসেছে তার নতুন যন্ত্র রোভারের মডেল। তার তৈরি রোভারটি রিমোট–চালিত। খানখন্দ অতিক্রম করতে পারে অনায়াসে। একটি ‘‌রানিং’‌ ক্যামেরা ব্যবহার করে মোবাইলের সাহায্যে তা দেখানো হচ্ছে মডেলে। প্রদর্শনীতে এই রোভার চালিয়ে দেখাচ্ছে সে। বোঝাচ্ছে এর কার্যপ্রণালী। খোদ কেন্দ্রীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিমন্ত্রী হর্ষ বর্ধন আবিরের এই যন্ত্রের কাজকর্ম দেখে প্রশংসা করেছেন। নজর কাড়ছে বিভিন্ন দেশ থেকে আসা প্রতিনিধিদেরও। ক্লাস নাইনে পড়ার সময় সে তৈরি করেছিল বিশেষ ধরনের হেলমেট। যে–‌হেলমেট না পরলে বাইক স্টার্ট নেয় না। কৃষি দপ্তরের কর্মী বাবা অমিয় ঘোষ জানিয়েছেন, ছোট থেকেই আবিরের নানা জিনিস তৈরির শখ।‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top