‌আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ এই মুহূর্তে চরম ব্যস্ততা ইসরোর দপ্তরে। আগামী সাত মাসের মধ্যে ১৯টি অভিযান চালাবে তারা। এর মধ্যে রয়েছে কৌতূহলের শীর্ষে থাকা ‘‌চন্দ্রায়ন ২’‌ অভিযানও। এছাড়াও রয়েছে ‘‌জিএসএলভি এমকে থ্রি’‌  মিশনটিও। যাকে সবাই চিনেছে ‘‌বাহুবলী’ নামেও। সব কিছু ঠিকঠাক চললে চন্দ্রায়ন ২ অভিযান শুরু হতে পারে ৩ জানুয়ারি। উৎক্ষেপণের পরে ১৬ ফেব্রুয়ারি চাঁদে পৌঁছবে ওই মহাকাশয়ান। ওই একই সময়ে ইজরায়েলের পক্ষ থেকেও চাঁদে মহাকাশযান পাঠানো হবে। মহাকাশ গবেষণার ইতিহাসে রাশিয়া, আমেরিকা এবং চীনের পরে ভারতই হবে চতুর্থ দেশ, যারা চাঁদে মহাকাশযান পাঠাবে। 
আপাতত যা হিসাব হয়েছে, তাতে প্রতি ৩০ দিনে দু’‌টি করে মহাকাশযান উৎক্ষেপণ করবে ইসরো।  তাদের চেয়ারম্যান কে শিবন বলেছেন, ‘‌১৯টি অভিযানের মধ্যে ১০টি উপগ্রহ উৎক্ষেপণ এবং ৯টি মহাকাশযান উৎক্ষেপণ রয়েছে। ১৫ সেপ্টেম্বর প্রথম উৎক্ষেপণ হবে। উল্লেখযোগ্য উৎক্ষেপণগুলির মধ্যে সেপ্টেম্বরে নভেশ্বর, অক্টোবরে বাহুবলী, নভেম্বরে জি স্যাট ১১, ডিসেম্বরে এমিস্যাট, জানুয়ারিতে চন্দ্রায়ন ২, ফেব্রুয়ারিতে কার্টোস্যাট ২ এবং মার্চে রিস্যাট ২ বিআরআই রয়েছে।’‌

জনপ্রিয়

Back To Top