আজকালের প্রতিবেদন: জনপ্রিয় সার্চ ইঞ্জিন গুগলের হস্তশিল্পের অনলাইন প্রদর্শনী ‘‌ক্রাফটেড ইন ইন্ডিয়া’–‌‌তে জায়গা করে নিল পুরুলিয়ার ছৌ নাচের মুখোশ। পৌরাণিক চরিত্র ফুটিয়ে তুলতে ও লোকসংস্কৃতির অঙ্গ হিসেবেই ছৌ নাচে এই মুখোশের ব্যবহার হয়। বাংলার লোকশিল্পের অংশ হিসেবেও ছৌ মুখোশ খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এছাড়াও বাঁকুড়ার টেরাকোটা, ডোকরা, কৃষ্ণনগরের মাটির পুতুল, পিংলার পটচিত্র, দক্ষিণ দিনাজপুরের কুশমুন্ডির কাঠের মুখোশ বাংলার উল্লেখযোগ্য হস্তশিল্প। ইতিমধ্যেই ‘‌জিওগ্রাফিক্যাল ইন্ডিকেশন’‌ পেয়েছে ডোকরা, মাদুর, কাঠের মুখোশ, পট। পাওয়ার অপেক্ষায় রয়েছে শীতলপাটি, কাঁথা। কয়েকদিন আগে কলকাতায় এক অনুষ্ঠানে অর্থমন্ত্রী অমিত মিত্র জানিয়েছেন, এইসব শিল্পের সঙ্গে যুক্ত রয়েছেন ২৫ হাজার শিল্পী। পর্যটকরা যাতে এইসব জিনিস সংগ্রহ করতে পারেন সেজন্য রাজ্যের বিভিন্ন জেলায় ২৫টি হস্তশিল্পের হাব হবে। 
গুগলের প্রদর্শনী থেকে কেনা যাবে কচ্ছের রানের কাপড়ের কারুকাজ, অঙ্গমী নাগাদের তৈরি বেতের হস্তশিল্প বা কাশ্মীরের কাঠের কাজ। সবই মিলবে অনলাইনে। এইসব ঐতিহ্যবাহী শিল্পকলার খুঁটিনাটিও জানা যাবে। দেখা যাবে তৈরি করার ভিডিও। ভারতের বিভিন্ন হস্তশিল্প অনলাইনে দেখা ও কেনার সুযোগ করে দিতে এই উদ্যোগ নিয়েছে সার্চ ইঞ্জিন গুগল। এই উদ্যোগে গুগল আর্ট অ্যান্ড কালচারকে সাহায্য করছে ভারতীয় পর্যটন দপ্তর। সংস্থার তরফে জানানো হয়েছে, দেশের কোথায় কোথায় হস্তশিল্পের প্রদর্শনী চলছে তারও সন্ধান দেওয়া হবে এই উদ্যোগে। বস্ত্র, সেলাই, আঁকা, পাথর ও ধাতুর কাজ কিছুই বাদ থাকছে না। ভারতের ২৯টি রাজ্যের ৫০ রকমের হস্তশিল্প থাকবে এই প্রদর্শনীতে। দেশের প্রাচীন হস্তশিল্পগুলির বিষয়ে ১১ হাজারেরও বেশি ছবি ও ভিডিও দেখা যাবে। দেশের ২১টি শিল্প প্রতিষ্ঠান প্রদর্শনীটির জন্য কাজ করছে। তারা বহু প্রচীন শিল্পকীর্তিকে অবলুপ্তির হাত থেকে রক্ষাও করেছেন। ‌‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top