আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ মঙ্গলে জলের অস্তিস্ব রয়েছে এমন দাবি আগেই করেছিলেন বিজ্ঞানীরা। এবার একেবারে হাতে নাতে প্রমাণ সংগ্রহ করে আনলেন তাঁরা।  নাসার কিউরিওসিটি মঙ্গলের যে ছবি পাঠিয়েছিল তাতে জলে অস্তিত্ব নিয়ে সরব হয়েছিলেন বিজ্ঞানীরা। এবার আস্ত একটি হ্রদের সন্ধান পাওয়া গিয়েছে মঙ্গলে। লালগ্রহের সাউথ পোলে প্রায় ২০ কিলোমিটার এলাকা জুড়ে বিস্তৃত রয়েছে এই হ্রদটি। সেটিতে জলেরই হৃদ তাতে কোনও সন্দেহ নেই বিজ্ঞানীদের।

 আমেরিকার এই বিজ্ঞান পত্রিকায় ইতালিয়ান এক জ্যোতির্বিজ্ঞানীর লিখেছেন মঙ্গলের জলের অস্তিত্বের কথা। 
মঙ্গল এখন শীতল গ্রহে পরিণত হলেও এক সময় এটি উষ্ণ এবং জলীয় ছিল বলে দাবি করেছেন বিজ্ঞানীরা। যে আবহাওয়া মঙ্গলে ছিল তা মানুষের বসবাসের উপযুক্ত ছিল বলে দাবি করেন তাঁরা। নাসার কিউরিওসিটিও একাধিক এমন ছবি পাঠিয়েছে, তাতে স্পষ্ট যে এক সময় মঙ্গলে জল ছিল। জল থাকলে পাথরে বা মাটিতে যেমন স্তর পড়ে সেরকম মঙ্গলেও রয়েছে।

বিজ্ঞানীদের দাবি ৩.‌৬ মিলিয়ন বছর আগে মঙ্গলে জলের অস্তিস্ব ছিল। আর জলের অস্তিত্ব থাকলেই সেখানে প্রাণ যে থাকবে তাতে কোনও সন্দেহ নেই। 
সে হৃদের সন্ধান পাওয়া গিয়েছে তার জল পানের যোগ্য নয় বলে জানিয়েছেন বিজ্ঞানীরা। লবনাক্ত জল, তার মধ্যে প্রচুর পরিমাণে খনিজ মিশে রয়েছে। প্রচণ্ড ঠাণ্ডার কারণে জলের উপরে অংশ জমে রয়েছে। তাপমাত্রা হিমাঙ্কের নীচে থাকলেও জল তরল অবস্থায় থাকতে পারে কারণ এখানকার জলে প্রচুর পরিমাণে  ম্যাগনেশিয়াম, ক্যালসিয়াম এবং সোডিয়াম মিশে রয়েছে। 

জনপ্রিয়

Back To Top