আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ আপনি কি ডেবিট কিংবা ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করেন? তাহলে সতর্ক থাকুন৷ কেননা আপনার মতো বহু গ্রাহকের কার্ডের তথ্য হাতিয়ে ইন্টারনেটের অন্ধকার দুনিয়ায় মোটা টাকায় বিক্রি করে দিচ্ছে হ্যাকাররা৷ ইন্টারনেটে চোখের সামনে বিক্রি হচ্ছে ১.‌৩ লক্ষ ভারতীয়ের ক্রেডিট ও ডেবিট কার্ডের তথ্য। প্রায় ১৩০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার দামের এই তথ্য ডার্ক ওয়েবে বিক্রি হচ্ছে। ১.‌৩ লক্ষ ক্রেডিট ও ডেবিট কার্ডের মধ্যে ভারতের বিভিন্ন ব্যাঙ্কের কার্ড রয়েছে। প্রত্যেক কার্ডের তথ্য কিনতে খরচ পড়বে ১০০ মার্কিন ডলার। ইন্টারনেট সুরক্ষা বিশেষজ্ঞরা বলছেন, সাম্প্রতিক ইতিহাসে এটাই ভারতের সবথেকে বড় কার্ড স্ক্যাম। ‌বিভিন্ন এটিএম ও পিওএস থেকে এই বিপুল পরিমাণ কার্ডের তথ্য হাতানো হয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে। কার্ডের তথ্যের সঙ্গে থাকছে ট্র্যাক ২ ডেটা। যেকোনও ডেবিট ও ক্রেডিট কার্ডের ম্যাগনেটিক স্ট্রিপে এই তথ্য থাকে। দুষ্কৃতিরা এই ধরনের তথ্য কিনে একই ধরনের কার্ড তৈরি করে এটিএম থেকে টাকা তুলে নেয়। সম্প্রতি চমকে দেওয়ার মতো এই খবর জানিয়েছে সিঙ্গাপুরের এক সাইবার নিরাপত্তা সংস্থা ‘‌গ্রুপ-আইবি’‌। জানা গিয়েছে, হ্যাক করা ব্যাঙ্ক গ্রাহকদের ওই তথ্য বিক্রি করার উদ্যোগ নিয়েছে ডার্ক ওয়েবসাইট ‘‌জোকার্স স্ট্যাশ’‌। প্রাথমিক তথ্য বিশ্লেষণে দেখা যাচ্ছে, ওই তথ্য হাতিয়ে অ্যাকাউন্ট থেকে খুব সহজে টাকা তুলে নেওয়া সম্ভব৷ তবে এই খবর প্রকাশ হতেই ব্যাঙ্কগুলিও তাদের প্রযুক্তি ও সুরক্ষা বাড়িয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে৷ যাতে প্রতারণার হাত থেকে রক্ষা পাওয়া যায়৷ গ্রুপ-আইবি সংস্থার প্রতিষ্ঠাতা তথা সিইও ইলিয়া সাশকোভ জানিয়েছেন, ভারতীয় উপমহাদেশ থেকে এই ধরনের তথ্য আপলোডের নজির বিশেষ নেই। সাইবার নিরাপত্তা দপ্তরকে বিষয়টি সম্পর্কে জানিয়েছে গ্রুপ-আইবি।‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top