আজকাল ওয়েবডেস্ক: গোটা পৃথিবী যখন করোনার আতঙ্কে থরহরিকম্পমান, দেশে দেশে আর অন্য কিছু নিয়ে আলোচনা নেই, তখন এক অদ্ভুত ঘটনা ঘটে গেল আফ্রিকার জঙ্গলে। প্রকৃতির রাজ্যে কত অবাক করা ঘটনা যে ঘটে, তার নতুন দৃষ্টান্ত হিসেবে এই ক'দিন আগেই জন্ম নিয়েছে এক 'জাঙ্কি'। 
কিছু বোঝা গেল? হয় তো না। গল্পটা তা হলে খোলসা করেই বলা যাক।  গত বছরের মে মাসে কেনিয়ার সাভো ইস্ট ন্যাশনাল পার্ক এ দলছুট হয়ে জঙ্গল লাগোয়া বসতিতে ঢুকে পড়েছিল একটা মাদী জেব্রা। সেখানকার মহিলাদের গবাদি পশুর পালে ঢুকে পড়ে এই জেব্রাটি। গরু ছাগল গাধাদের সঙ্গে তার সহাবস্থানে কোনই অসুবিধে হয়নি। পশুর পালের মালকিনও নতুন অতিথিকে জায়গা দেন নির্দ্বিধায়। বিষয়টি জানতে পেরে কেনিয়ার সংবাদ মাধ্যমে খবরটা বেরোয়।
বনদফতর তখন ঠিক করে যে জঙ্গলের জেব্রাকে জঙ্গলেই ফেরাতে হবে। কিন্তু ততদিনে যেহেতু সে লোকালয়ের জীবনযাত্রায় অভ্যস্ত হয়ে গেছে, তাই তাকে সাভো ন্যাশনাল পার্কের জঙ্গলে না ফিরিয়ে চিউলু ন্যাশনাল পার্কের একটি বিশেষ এনক্লোজারে রাখার সিদ্ধান্ত হয়। ক'দিন আগে সেখানেই ঘটল আশ্চর্য ঘটনা।
বনকর্মীরা দেখেন জেব্রাটির সঙ্গে একটি ছোট্ট ছানা। জেব্রার ছানাদের জন্মের পরে পরে সাদা আর বাদামী দাগ বা স্ট্রাইপ থাকে। পরে সেই বাদামী দাগগুলো কালো হয়ে যায়। কিন্তু এই ছানাটির পিঠ বুক পেট অদ্ভুত পাটকিলে রঙের। আর শুধু পায়ের কাছে কালচে ডোরা কাটা দাগ। তখনই বোঝা যায় কী হয়েছে। এটা জেব্রা নয়। জেব্রা আর ডাঙ্কি র মিলনে জন্মানো জাঙ্কি। জেব্রাটির সেই লোকালয় বাসের সময়ে কোনও এক সাহসী গাধা তাকে আকৃষ্ট করেছিল শারীরিকভাবে। 
এখন একটাই সমস্যা। জেব্রা আর গাধার এই সংমিশ্রণ যদিও সুস্থ ও স্বাস্থ্যবান, সে কিন্তু বড় হলে কোনও প্রজনন ঘটাতে পারবে না, খচ্চরদের মতো।

জনপ্রিয়

Back To Top