আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ রেস্টুরেন্টের সম্পর্কে খারাপ রিভিউ দেওয়ার জন্য জেল হল মার্কিন ব্যক্তির। সঙ্গে চাকরিটাও খোয়া গেল। শুনে অবাক লাগলেও এটাই সত্যি।
থাইল্যান্ডের ‘‌‌সি ভিউ কো চ্যাং’‌ রেস্টুরেন্টে খেতে গিয়েছিলেন এক আমেরিকান ব্যক্তি। ওয়েসলি বার্নেস। তিনি থাইল্যান্ডে ইংরেজির শিক্ষকতা করেন। ‘‌দ্য নিউ ইয়র্ক টাইমস্‌’– এর খবর, তাঁর অভিযোগ, তিনি রেস্টুরেন্টে গিয়েছিলেন একটি মদের বোতল নিয়ে। রেস্টুরেন্টের বার থেকে না নিয়ে তিনি বাইরে থেকে মদ এনেছিলেন বলে তাঁকে ১৫ ডলার দিতে বলা হয়। সেখানে তর্কাতর্কি চলে। এবং শেষমেশ কর্তৃপক্ষ রাজি হয়ে যায়। কিন্তু ওয়েসলি রেস্টুরেন্ট থেকে ফিরে এসে ‘‌ট্রিপ অ্যাডভাইসর’ ওয়েবসাইটে এই রেস্টুরেন্টের সম্পর্কে মন্তব্য করে লেখেন, ‘‌এটাই করোনাভাইরাস। কেউ যাবেন না এখানে।’ এবং ‌‘‌আধুনিক যুগে থাইল্যান্ডের মানুষের ক্রীতদাসপ্রথাকে সমর্থন করবেন না।’ দ্বিতীয় মন্তব্যের কারণ হিসেবে তিনি জানিয়েছেন, তিনি দেখেছেন, একজন কর্মীর সঙ্গে অত্যন্ত খারাপ ব্যবহার করছিলেন এক আধিকারিক। 
রেস্টুরেন্টের দাবি, তাঁর সব দাবিই রং চড়ানো। ওয়েসলির নামে মামলা করার আগে বহুবার তাঁর সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করা হয়েছে। কিন্তু তিনি কিছুর উত্তর না দিয়ে কেবল নেতিবাচক কথাবার্তা লিখে যাচ্ছিলেন। তারপরেই তাঁর বিরুদ্ধে মানহানির মামলা ও ইন্টারনেটে ভুয়ো তথ্য লেখার জন্য মামলা দায়ের করা হয়। 
দু’‌দিনের জন্য তাঁকে জেলে থাকতে হয়। তারপর ৩,১৬০ ডলার দিয়ে জামিন মেলে। তাঁর চাকরি চলে যায়। এবং তিনি এখনও পর্যন্ত ফের জেলে ঢোকার ভয়ে রয়েছেন বলে জানাল ‘‌দ্য নিউ ইয়র্ক টাইমস্‌’।  ‌‌  

জনপ্রিয়

Back To Top