আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ এমন মানুষ আজও সমাজে আছেন বলেই সমাজের বুকে কিছু কল্যাণকর কাজ ঘটে চলেছে। যেমন ডাঃ শঙ্কর রামচন্দানি। যিনি বীর সুরেন্দ্র সাই ইনস্টিটিউট অফ মেডিকেল সায়েন্সেস অ্যান্ড রিসার্চের নাম করা চিকিৎসক। যিনি নিজের যমজ সন্তানের জন্মদিনের অনুষ্ঠান পালন না করে ১২ বছরের এক এইচআইভি আক্রান্ত কিশোরের চিকিৎসায় ৫০ হাজার টাকা দান করেছেন!‌ 
শুনতে অবাক লাগলেও আজ এটাই বাস্তবিক খবর। যা নিয়ে রীতিমতো চর্চা হতে শুরু করেছে। এমন মানুষ বিরল বটেই। তা না হলে এত বড় হৃদয়ের পরিচয় দিতে পারতেন না। চিকিৎসক শঙ্কর রামচন্দানি মেডিসিনের শীর্ষ রেসিডেন্ট তিনি এমন কাজ করে দেখিয়েছেন। ঠিক কী করেছেন তিনি?‌ জানা গিয়েছে, তিনি নিজের যমজ কন্যা সন্তানের জন্মদিন পালন করবেন বলে রেখেছিলেন ৫০ হাজার টাকা। এই টাকা দিয়েই বড় অনুষ্ঠান করার কথা ছিল তাঁর। কিন্তু তা হল না। 
গত সপ্তাহে তাঁর কানে খবর আসে এক ১২ বছরের কিশোর এইডস রোগে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে। এমনকী তাঁর বাবা–মা এই রোগেই আক্রান্ত হয়ে মারা গিয়েছেন। পারিবারিক সম্পর্কিত এক কাকার কাছে সে থাকত। সপ্তম শ্রেণীতে পড়াশোনা করছে। কিন্তু এই অসুখ তাকে শে, করে দিচ্ছে। তার আর্থিক অবস্থাও এতটাই করুণ যে চিকিৎসা চালিয়ে পড়াশোনা করা সম্ভব নয়। হাসপাতালে রোগী দেখতে দেখতে ছেলেটির কাছে এসে কথা বলেছিলেন ডাঃ শঙ্কর রামচন্দানি। তখন তিনি ঠিক করে ফেলেন মেয়েদের জন্মদিনের অনুষ্ঠান বাতিল করে দেবেন। আর টাকাটা কিশোরের চিকিৎসা ও পড়াশোনার কাজে দিয়ে দেবেন। তিনি তাই করলেন। যা একটা নজির হয়ে থেকে গেল দেশে। 

জনপ্রিয়

Back To Top