আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ সেই ১৯৯০ সালে সন্ত্রাসবাদ মাথাচাড়া দেয় জম্মু ও কাশ্মীরে। তার জেরে বন্ধ হয়ে যায় একের পর এক মন্দির। ৩১ বছর পার। অবশেষে বসন্ত পঞ্চমীর দিন ফের ঘণ্টা বাজল শ্রীনগরের উপকণ্ঠে ক্রালাখুদের শীতলনাথ মন্দিরে। উঠল যজ্ঞের ধোওয়া। জড়ো হলেন স্থানীয় এবং অভিবাসী কাশ্মীরি পণ্ডিতরা। এগিয়ে এলেন মুসলিমরাও।
নয়ের দশকে বন্ধ হয়ে গিয়েছিল এই মন্দির। বসন্ত পঞ্চমীতে কাশ্মীরি পণ্ডিতরা পড়াশোনায় শিশুদের হাতেখড়ি দেয়।  সেই শুভলগ্নেই এবার মন্দিরে সরকারিভাবে পুজো শুরু হল। পোড়ানো হল বাজি। জানালেন মন্দিরের পুরোহিত উপেন্দ্র হান্ডু। তাঁর কথায়, এবার এক এক করে মন্দিরের সামনে ফের খুলে যাবে দোকানপাট। স্থানীয়দের কর্মসংস্থান হবে। 
উদ্বোধন অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ৩০ জন কাশ্মীরি পণ্ডিত। তবে স্থানীয় মুসলিমরাও কম সাহায্য করেননি, জানালেন হাণ্ডু। তাঁর মতে, এই শীতলনাথ মন্দিরের ফের খুলে যাওয়া নতুন বার্তা দেবে দেশকে। জানাবে, যে কাশ্মীর এখন নিরাপদ। মন্দির খোলার দিন হাজির হলেন শ্রীনগরের মেয়র জুনেদ মাট্টুও। 

 

জনপ্রিয়

Back To Top