আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ মামাবাড়িতে বেড়াতে এসে চলন্ত ট্রেনে কাটা পড়ে মারা গেল বাবা ও ছেলে। শনিবার তিস্তা নদীর ব্রিজের কাছে মংপং এলাকায় ঘটে এই মর্মান্তিক দুর্ঘটনা। 
নেপাল থেকে স্ত্রীকে নিয়ে মংপং এলাকায় শ্বশুরবাড়িতে বেড়াতে এসেছিলেন ইন্দ্রকুমার প্রধান। সঙ্গে ছিল স্ত্রী ললিতা ও দুই ছেলে। এই মংপং এলাকা দিয়েই গেছে শিলিগুড়ি–আলিপুরদুয়ার ব্রডগেজ রেলপথ। 
শনিবার দুপুর একটা নাগাদ তিস্তা ব্রিজের ৩১ নং পিলার সংলগ্ন মংপং পিকনিক স্পট এলাকায় খেলা করছিল ইন্দ্রকুমারের আট বছরের ছেলে রোহন। খেলতে খেলতে সে রেল লাইনের উপর চলে আসে। ছেলে লাইনের উপর উঠে পড়েছে দেখে তাঁকে বাঁচাতে ছুটে আসে মা–বাবা। সেসময় আসছিল শিলিগুড়ি–বঙ্গাইগাঁও প্যাসেঞ্জার ট্রেন। মা–বাবা এলেও ততক্ষণে অনেকটাই দেরি হয়ে গিয়েছিল। ছেলেকে তবুও বাঁচানোর চেষ্টা করেছিল বাবা। কিন্তু চলন্ত ট্রেনে কাটা পড়ে যান ইন্দ্রকুমার ও রোহন। গুরুতর আহত হন ইন্দ্রকুমারের স্ত্রী ললিতা। আশঙ্কাজনক অবস্থায় ললিতাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। 

 

ফাইল ছবি 

জনপ্রিয়

Back To Top