সব্যসাচী ভট্টাচার্য, সঞ্জয় বিশ্বাস,দার্জিলিং:  স্বপ্না বর্মনের পরিবারের পাশে দাঁড়ালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি। ২০১৩ সালেই বঙ্গরত্ন পুরস্কার দিয়েই স্বপ্নার প্রতিভাকে স্বীকৃতি জানিয়েছিল রাজ্য সরকার। সেই স্বপ্নাই এবার এশিয়ান গেমসে হেপ্টাথলনে সোনা জিতে দেশের মুখ উজ্জ্বল করেছেন। তাই স্বপ্নার সেই কৃতিত্বকে কুর্নিশ জানিয়ে বুধবার দার্জিলিং ম্যালের শিক্ষক দিবসের মঞ্চে স্বপ্নার মা বাসনা বর্মনের হাতে ১০ লক্ষ টাকার চেক তুলে দিলেন মুখ্যমন্ত্রী। মুখ্যমন্ত্রীকে কাছে পেয়ে ছেলে অসিত বর্মনের জন্য একটি চাকরির ব্যবস্থা করে দেওয়ার আর্জি জানিয়েছিলেন স্বপ্নার মা। তৎক্ষণাৎ সেই আর্জিও পূরণ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী। মঞ্চেই পর্যটনমন্ত্রী গৌতম দেবকে নির্দেশ দিয়েছেন পর্যটন দপ্তরে স্বপ্নার ভাইয়ের জন্য চাকরির ব্যবস্থা করতে। এখানেই শেষ নয়। মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘‌স্বপ্না চাইলে তাঁকেও চাকরি দিতে আগ্রহী রাজ্য সরকার।’‌ তিনি জানান, ‌অরূপ বিশ্বাসকে বলা হয়েছে এই ধরনের ক্রীড়াব্যক্তিত্বের পাশে দাঁড়ানোর উদ্যোগ নিতে। 
জলপাইগুড়ির পাতকাটা গ্রাম পঞ্চায়েতের কালিয়াগঞ্জ ঘোষপাড়ার বাসিন্দা স্বপ্নার পরিবার অত্যন্ত দরিদ্র। বাবা ভ্যানচালক। বর্তমানে অসুস্থ। মা সংসার চালাতে চা–‌বাগানে কাজ করতেন। এমন পরিবার থেকে স্বপ্নার এই সাফল্য নাড়িয়ে দিয়েছে গোটা দেশকে। স্বপ্নার বাড়ি গিয়ে তাঁদের পাশে দাঁড়ানোর প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন পর্যটনমন্ত্রী গৌতম দেব। এদিন ম্যালের মঞ্চ থেকে অক্ষরে অক্ষরে সেই প্রতিশ্রুতিই পালন করলেন মুখ্যমন্ত্রী। জানিয়ে দিলেন, পরিবারের যে কোনও প্রয়োজনে পাশে থাকবে তাঁর সরকার। আগামীদিনে স্বপ্নাকে সংবর্ধিত করার পরিকল্পনাও রয়েছে রাজ্যের। রাজ্য সরকারের এই সহমর্মিতা আপ্লুত করেছে স্বপ্নার পরিবারকেও। স্বপ্নার মা বাসনাদেবী জানান, ‘‌সরকার যেভাবে পাশে দাঁড়িয়েছে তাতে আমরা কৃতজ্ঞ।’‌ 

জনপ্রিয়

Back To Top