অম্লানজ্যোতি ঘোষ, আলিপুরদুয়ার: রাজ্যে মাধ্যমিকে মেয়েদের মধ্যে সার্বিক মেধা–‌তালিকায় যুগ্মভাবে দ্বিতীয় স্থান পেল ফালাকাটা গার্লস হাই স্কুলের শ্রেয়সী পাল। মেয়েদের মধ্যে অবশ্য যুগ্মভাবেই রাজ্যে প্রথম স্থান তার। মাধ্যমিকের ইতিহাসে ফালাকাটায় এত ভাল ফলের নজির নেই। 
শ্রেয়সীর বাবা অবসরপ্রাপ্ত প্রাথমিক শিক্ষক শ্যামাপ্রসাদ পাল ও মা বিশাখা পাল দু’‌জনেই মেয়ের সাফল্যে গর্বিত। তঁাদের কথায়, শ্রেয়সী খুবই ভাল ফল করবে, তা জানতাম। তবে এতটা ভাল ফলের প্রত্যাশা ছিল না। শ্রেয়সী জানিয়েছে, বড় হয়ে চিকিৎসক হয়ে গরিবদের সেবা করাই তার লক্ষ্য। আপাতত বিজ্ঞান নিয়ে পড়তে চায় সে। 
কোনও ধরাবাঁধা নিয়মে পড়েনি শ্রেয়সী। দিনে সাত থেকে আট ঘণ্টা পড়েছে। সাতজন প্রাইভেট টিউটর ছিল তার। পড়াশোনার পাশাপাশি সময় পেলে ছবি অঁাকা ও ছোট গল্প পড়ার ঝোঁক রয়েছে। টিভিতে ক্রিকেট দেখতেও ভালবাসে সে। মা বিশাখা পাল বলেন, ‘‌গান–‌নাচ সবই শিখেছে, তবে পরীক্ষার জন্য সাময়িকভাবে তা বন্ধ ছিল।’‌ সব মিলিয়ে শ্রেয়সী পেয়েছে ৬৯১। শ্রেয়সীর প্রাপ্ত নম্বর বাংলায় ৯৬, ইংরেজিতে ৯৭, জীবন বিজ্ঞানে ৯৯, একই সঙ্গে অঙ্ক, ভূগোল ও ভৌত বিজ্ঞানে ১০০ করে নম্বর পেয়েছে। শ্রেয়সীর সুভাষপল্লীর বাড়িতে এদিন ভিড় জমান অনেকেই। আসেন ফালাকাটার বিধায়ক অনিল অধিকারী। আলিপুরদুয়ার থেকে চলে আসেন বিধায়ক সৌরভ চক্রবর্তী। শ্রেয়সীকে পুষ্পস্তবক দিয়ে শুভেচ্ছা জানান।

জনপ্রিয়

Back To Top