শুভঙ্কর পাল, শিলিগুড়ি, ১০ সেপ্টেম্বর- রবিবার রাত থেকে টানা বৃষ্টির জেরে প্লাবিত শিলিগুড়ি। জলমগ্ন শহরের অধিকাংশ ওয়ার্ড। মহকুমার বিভিন্ন ব্লকের অবস্থাও একইরকম। সোমবার দিনভরই বৃষ্টি চলায় সমস্যা আরও বাড়তে শুরু করে। শহরের মধ্যে দিয়ে বয়ে চলা মহানন্দা ফুলেফেঁপে উঠতেই আশপাশের বস্তির মানু্ষ ঘরবাড়ি ছেড়ে অন্যত্র যেতে শুরু করেন। প্রবল বৃষ্টির জেরে রবিবার রাতে একটি অ্যাপার্টমেন্টের দেওয়াল ভেঙে পড়ে শালবাড়িতে একজনের মৃত্যু হয়েছে। জখম হয়েছেন তিন জন। 
সোমবার ভোর থেকে পঞ্চনই নদীর বাঁধ ভেঙে জল ঢুকতে শুরু করে শিলিগুড়ির ১ নম্বর ওয়ার্ডের বিস্তীর্ণ এলাকায়। যার মধ্যে আম্বেদকর কলোনির অবস্থা ভয়াবহ। কয়েকশো বাড়ির মধ্যে নদীর জল ঢুকে যায়। ঘরে বিছানার উপর দিয়ে জল বইতে শুরু করে। বিভিন্ন দোকান জলের তলায় চলে যায়। সকাল থেকে কোনও জনপ্রতিনিধি এলাকায় না আসায় দুপুরে চতুর্থ মহানন্দা ব্রিজে বাঁশ লাগিয়ে পথ অবরোধ শুরু করেন স্থানীয় বাসিন্দারা। জল পেরিয়ে মাটিগাড়া থানার পুলিস ঘটনাস্থলে পৌঁছায়। পুলিসের আশ্বাসে অবরোধ ওঠে। রবিবার রাত থেকে গোটা এলাকার বিদ্যুৎ যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। কোনও বাড়িতেই এদিন রান্না হয়নি। বিছানা, প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র সঙ্গে নিয়ে অনেকেই এলাকা ছাড়েন। আকাশ বসাক নামে এক এলাকাবাসী বলেন, ‘‌প্রতিবছর বৃষ্টি হলে জলমগ্ন হয়ে পড়ে এই এলাকা। কিন্তু এবার একরাতের বৃষ্টিতে ভয়াবহ পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। নিকাশি ব্যবস্থা ভাল করার দাবি কাউন্সিলরকে জানিয়ে কোনও লাভ হয়নি‌।’‌ 
পাশাপাশি অশোকনগর, শক্তিগড়, ঘোগোমালি, হায়দরপাড়া, চম্পাসারি, জংশন, শালবাড়ি, দেবীডাঙা–‌সহ শহরের নানা এলাকা জলমগ্ন হয়ে পড়ে এদিন। মাটিগাড়া, ফাঁসিদেওয়া, খড়িবাড়ির অবস্থাও ছিল ভয়াবহ। মহানন্দার স্রোতের ধাক্কায় সমরনগরের কাছে একটি নির্মীয়মাণ ব্রিজের একাংশ ভেঙে যায়। মেয়র পারিষদদের সঙ্গে নিয়ে বিভিন্ন ওয়ার্ড পরিদর্শন করেন মেয়র অশোক ভট্টাচার্য। অন্যদিকে রবিবার মাঝরাতে প্রবল বৃষ্টির জেরে শালবাড়িতে একটি বাড়ির উপর এক অ্যাপার্টমেন্টের দেওয়াল ভেঙে পড়ে। সেসময় এক বিছানাতেই ঘুমোচ্ছিলেন নারায়ণ মণ্ডল ও তাঁর স্ত্রী, দুই সন্তান। ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় নারায়ণবাবুর। স্থানীয়রা দমকলে খবর দেন। দমকল কর্মীরা এসে উদ্ধারকাজ শুরু করেন। গুরুতর জখম অবস্থায় ৩ জনকে শিলিগুড়ি জেলা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। জানা গেছে, নারায়ণ বাবু গাড়ির চালক ছিলেন। সোমবার সকালে এলাকাবাসীরা ওই অ্যাপার্টমেন্টের সামনে গিয়ে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন। দুপুরে ওই বাড়িতে যান শিলিগুড়ি মহকুমা পরিষদের সভাধিপতি তাপস সরকার। প্রমোটারের নামে থানায় অভিযোগ দায়ের করা হবে বলে জানিয়েছেন তাপসবাবু। 
এদিকে পরিস্থিতির ওপর নজর রাখার পাশাপাশি বিভিন্ন দপ্তরকে যে কোনও পরিস্থিতির জন্য তৈরি থাকতে বলা হয়েছে বলে মহকুমাশাসক সিরাজ দানেশ্বর জানিয়েছেন।

মৃত নারায়ণ । ছবি:‌প্রতিবেদক

জনপ্রিয়

Back To Top