অভিজিৎ চৌধুরি, মালদা, ৩০ জুলাই- হোয়াটস অ্যাপ, ফেসবুক–‌সহ সোশ্যাল মিডিয়ার দাপট আর আধুনিক প্রযুক্তির জমানায় কলম যাতে হারিয়ে না যায়, তার জন্য পাঁচশোর'ও বেশি পুরনো ও নতুন কলম মজুত করে একটি সংগ্রহশালা তৈরি করেছেন পুরাতন মালদা ব্লকের বাসিন্দা সুবীর কুমার সাহা। পেশায় ওল্ড বাণীভবন টাউন লাইব্রেরিয়ান পদে কর্মরত সুবীরবাবু। ওই লাইব্রেরীতেই নিজের উদ্যোগে কলমের একটি সংগ্রহশালা তৈরি করেছেন তিনি। 
শুধু কলম নয়, পুরনো দিনের বিভিন্ন রকমের কয়েন এবং বহু পুরনো বই ও সংবাদপত্র তাঁর সংগ্রহশালায় স্থান পেয়েছে। তবে বিশেষভাবে তিনি কলমের ওপরই জোর দিয়েছেন। সুবীরবাবু বলেন, এই সংগ্রহশালায় স্থান পেয়েছে খাগের কলম, পাখির পালকের কলম, ময়ূরের পালকের কলম, পাটকাঠির কলম, ফাউন্টেন পেন, বল পেন, স্কেচ পেন। এছাড়াও রংবেরঙের হরেক রকময়ের কলম সংগ্রহশালায় সাজিয়ে রাখা হয়েছে। মান্ধাতার আমলে ব্যবহৃত কলম, আজকের যুগে ব্যবহৃত আধুনিক পেন সবই জায়গা করে নিয়েছে ওই সংগ্রহশালায়। গত কুড়ি বছরের বেশি সময় ধরে এই কলম সংগ্রহ করার নেশায় যুক্ত রয়েছেন তিনি। এছাড়াও আগেকার দিনের এক আনা, দুই আনা, তিন আনা, পাঁচ পয়সা, দশ পয়সা–‌সহ বিভিন্ন ধরনের কয়েন মজুদ রয়েছে ওই সংগ্রহশালায়। উল্লেখ্য, ২০১৭ সালের ১৪ অক্টোবর রাজ্যের একজন সেরা লাইব্রেরিয়ান হিসেবে পুরাতত্ত্ব পরিষদের তরফে পুরস্কৃত হয়েছিলেন সুবীরবাবু। তাঁকে সেই সময় নির্মলচন্দ্র স্মৃতি পুরস্কার দেওয়া হয়েছিল। নবদ্বীপের পুরাতত্ত্ব পরিষদ এই পুরস্কারটি দিয়েছিল। 
কেন তাঁর কলমের প্রতি এমন আকর্ষণ?‌ কেনই বা এগুলি সংগ্রহে রেখেছেন?‌ সুবীরবাবু বলেন, আধুনিকতার ছোঁয়ায় প্রাচীন লেখন নিয়ে খুব কম মানুষ মানুষ চিন্তাভাবনা করেন।‌ এখন যা হচ্ছে সবই কম্পিউটার আর অত্যাধুনিক মোবাইলে। টাইপ থেকে ভার্সন তৈরি হয়ে যাচ্ছে। কলমের ব্যবহার ধীরে ধীরে অবলুপ্তির পথে চলে যাচ্ছে। যেভাবে আদিম মানুষ থেকে আধুনিক সভ্যতায় মানুষ পৌঁছে গিয়েছে, ঠিক সেভাবেই একদিন কলমের প্রয়োজন ফুরিয়ে যাবে। কিন্তু সেই কলমের ব্যবহার মানুষের কাছে তুলে ধরতেই এই  সংগ্রহশালা তৈরি করেছি। কাজের ফাঁকে দেশ–বিদেশে যেখানেই যাই না কেন, কোথাও কোনও নতুন ধরনের কলম দেখলেই তা সংগ্রহ করি। এখন পাঁচশোরও বেশি পুরনো দিনের কলম আমার সংগ্রহশালায় রয়েছে। আমি চাই, আগামী প্রজন্মের ছেলেমেয়েরাও যেন কলমকে ভুলে না যায়। কম্পিউটার, মোবাইল, অ্যাপস সবই থাকুক। আর তার মাঝে টিকে থাকুক কলমেরও সভ্যতা।

নিজের সংগ্রহশালায় নানারকম কলম মেলে ধরছেন সুবীরকুমার সাহা। ছবি:‌ প্রতিবেদক‌‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top