অভিজিৎ চৌধুরি, মালদা, ২৫ মার্চ- করোনা রুখতে বাড়ি থেকে বেরোবেন না। এই শপথকে দৃঢ় করতে নিজেদের মাথা মুড়িয়ে ফেললেন ৪৫ জন তৃণমূলকর্মী। যাঁদের মধ্যে রয়েছেন তৃণমূলের পঞ্চায়েত সদস্য, উপপ্রধান, অঞ্চল সভাপতিও। একযোগে মাথা ন্যাড়া করার বিষয়টি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হতেই শোরগোল পড়ে গেছে মালদায়। ঘটনাটি ঘটেছে চাঁচোল মহকুমার রতুয়া–‌১ ব্লকের বাহারাল গ্রামপঞ্চায়েতের দক্ষিণ সাহাপুর গ্রামে।
স্থানীয় তৃণমূল নেতাদের এহেন উদ্যোগে কিছুটা বিস্মিত হলেও প্রশংসা করেছেন অনেকেই। প্রত্যেকেই শপথ নিয়েছেন মাথার চুল যতক্ষণ না পর্যন্ত ঘন হচ্ছে, ততদিন বাড়ি থেকে বেরোবেন না কেউই। বুধবার বাহারাল গ্রামপঞ্চায়েতের দক্ষিণ সাহাপুর গ্রামে ওই ৪৫ জন তৃণমূল নেতা–কর্মী একযোগে মাথা ন্যাড়া করে অভিনব এই শপথ নিয়েছেন। আর গ্রামবাসীদের কাছে অনুরোধ করেছেন তাঁরাও যেমন বাড়ি থেকে না বের হন। 
স্থানীয় পঞ্চায়েত সূত্রে জানা গেছে, বাহারাল গ্রামপঞ্চায়েত তৃণমূলের দখলে রয়েছে। ওই এলাকার অঞ্চল সভাপতি আসলিম শেখ। পঞ্চায়েতের উপপ্রধান হিম্মত খান। আতাউল শেখ, সিরাজুল শেখ, বেলালউদ্দিন আহমেদ–‌সহ ১০ জন সদস্য রয়েছেন। এর বাইরে রয়েছেন অন্য তৃণমূলকর্মীরা। মোট ৪৫ জন মাথা ন্যাড়া করে নিজেদের গৃহবন্দি রাখার শপথ নিয়েছেন। উপপ্রধান হিম্মত খান বলেন, ‘‌ন্যাড়ামাথা করে আমরা শপথ নিয়েছি ২১ দিন বাড়ি থেকে বের হব না। তত দিনে মাথার চুল ঘন হয়ে যাবে। ন্যাড়া মাথায় বেরোলে কেউ লজ্জা পাবে, আবার কেউ সঙ্কোচ বোধ করবে। তার থেকে এই অবস্থায় বাড়িতে থাকা ভাল।’‌ 

লকডাউন ঘোষণা হতেই মাথা ন্যাড়া করে ফেললেন তৃণমূল কর্মীরা। ছবি:‌ প্রতিবেদক

জনপ্রিয়

Back To Top