আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ নেপালে পাচারের পথে মালবাজার থেকে উদ্ধার হাতির দাঁত, গণ্ডারের খড়গ। যার বাজার মূ্ল্য কয়েক কোটি টাকা। একইসঙ্গে হাতেনাতে তিন পাচারকারীকেও পাকড়াও করা হয়েছে। তাদের মধ্যে ভিনদেশের নাগরিকও রয়েছে। বন বিভাগের স্পেশাল টাস্ক ফোর্সের অভিযানে এল বড়সড় সাফল্য। 
উত্তরবঙ্গের ডুয়ার্সের মালবাজার এলাকা বন্যপ্রাণী পাচারের গুরুত্বপূর্ণ করিডোর হয়ে উঠেছে। নেপাল, ভুটান এলাকায় হাতির দাঁত, গণ্ডারের খড়গ, পশুর চামড়ার কদর মারাত্মক। আর সেই বাজার ধরতে নির্বিচারে চলে পশু শিকার। অসম সহ উত্তর পূর্ব ভারতের রাজ্যগুলিতে চোরা শিকারিদের দাপট বেশি। 
গোপন সূত্রে বন দপ্তরের কাছে খবর ছিল মালবাজার দিয়ে বন্যপ্রাণীদের দেহাংশ পাচার করা হবে। পাচারকারীদের ধরতে ফাঁদ পেতেছিল বন বিভাগের স্পেশাল টাস্ক ফোর্সের আধিকারিকরা। সন্দেহজনক গাড়িগুলিতে তল্লাশি চালাচ্ছিলেন তাঁরা। সেইসময় একটি চারচাকা গাড়ি দাঁড় করিয়ে তল্লাশি চালাতেই উদ্ধার হয় দাঁত ও খড়গ। গাড়ির মধ্যে একটি ব্যাগে সেগুলি রাখা ছিল। জানা গিয়েছে, উদ্ধার হওয়া হাতির দাঁত ও খড়গগুলি ভুটান থেকে নেপালে পাচার করা হচ্ছিল। অসমে বন্যপ্রাণীদের হত্যা করে এই অংশগুলি সংগ্রহ করা হয়।
ধৃতদের মধ্যে একজন ভুটান, একজন সিকিম ও আরেকজন ভুটান সীমান্ত সংলগ্ন আলিপুরদুয়ারের জয়গাঁও এলাকার বাসিন্দা। ধৃতদের নাম সুভাষ ছেত্রী, পিয়ার রাই, অর্জুন তিওয়ারি। ধৃতদের জলপাইগুড়ি আদালতে হাজির করিয়েছে টাস্ক ফোর্স। 

জনপ্রিয়

Back To Top