আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ হিমালয়ের পাদদেশে সরে গিয়েছে মৌসুমি রেখা। তার সঙ্গে মিলেছে বঙ্গোপসাগর থেকে আসা দক্ষিণপশ্চিমী এবং দক্ষিণী বায়ু। তিনটির সহযোগে আগামী তিন–চার দিন পূর্ব এবং উত্তরপূর্ব ভারতে বিক্ষিপ্তভাবে অতি ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস দিল মৌসম ভবন। উত্তরবঙ্গ, সিকিম, বিহার, অসম, মেঘালয়, অরুণাচল প্রদেশে লাল সতর্কতা জারি করেছে মৌসম ভবন।
পূর্ব উত্তর প্রদেশেও আগামী ১২ তারিখ পর্যন্ত বিক্ষিপ্তভাবে অতি ভারী বৃষ্টির পূ্র্বাভাস আছে। পূর্ব এবং উত্তরপশ্চিম ভারতের মধ্যে উত্তর প্রদেশ, বিহার এবং উত্তরাখণ্ডে মাঝারি থেকে ভয়ঙ্কর বজ্রবিদ্যুৎ সহ ঝড় হতে পারে। মধ্য প্রদেশের একাংশ, উত্তরপূর্ব রাজস্থান, উত্তর ছত্তিশগড়, এবং ওডিশার একাংশেও বজ্রবিদ্যুৎ সহ ঝড়ের পূর্বাভাস দিয়েছে মৌসম ভবন। পূর্ব উত্তর প্রদেশ থেকে ছত্তিশগড় হয়ে দক্ষিণ ওডিশা পর্যন্ত বিস্তৃত মৌসুমি বায়ুর জন্যই এই ঝড়বৃষ্টির সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে। এছাড়া উত্তরপূর্ব আরব সাগর থেকে দক্ষিণ পাকিস্তান পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে নিম্নচাপ। পূর্বমধ্য আরব সাগরের উপর অবস্থান করছে ঘূর্ণাবর্ত। এখনও পর্যন্ত সারা দেশে ১২ শতাংশ অধিক বর্ষার বৃষ্টি হয়েছে বলে জানিয়েছে মৌসম ভবন।
এদিকে, বৃহস্পতিবার থেকেই অসমে বন্যা পরিস্থিতি চরমে পৌঁছিয়েছে। জোরহাট এবং ধুবরিতে বিপদসীমার উপর দিয়ে বইছে ব্রহ্মপুত্র। অসম রাজ্য বিপর্যয় মোকাবিলা কর্তৃপক্ষ বা এএসবিএমএ–র তথ্য অনুযায়ী, সারা রাজ্যে মোট ১,৮২,৫৮৩জন মানুষ বন্যাদুর্গত। এপর্যন্ত ৬৪জন মারা গিয়েছেন। সব থেকে খারাপ অবস্থা ধেমাজি, বরাপেটা এবং লখিমপুর জেলার।     
 

জনপ্রিয়

Back To Top