আজকালের প্রতিবেদন‌, দিল্লি: যোগী আদিত্যনাথের রাজ্যে ক্ষতিপূরণ আদায়ের নোটিস বাতিলের আর্জি নিয়ে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হলেন লখনউয়ের ক্যা-‌বিরোধী আন্দোলনকারীরা। উত্তরপ্রদেশে আন্দোলনের জেরে নষ্ট হওয়া সরকারি সম্পত্তির ক্ষতিপূরণ আদায়ে ৬ ‌বছর আগে মৃত থেকে শুরু করে নব্বই বছরের বৃদ্ধকেও নোটিস পাঠিয়েছে স্থানীয় জেলা প্রশাসন। আবেদনে অভিযোগ করা হয়েছে, ইচ্ছাকৃত ভাবে এই ‘‌স্বেচ্ছাচার’‌ করা হচ্ছে।
মামলার আবেদনে ক্যা, এনআরসি এবং এনপিআরের বিরুদ্ধে উত্তরপ্রদেশ জুড়ে আন্দোলন ও অশান্তির ঘটনায় বিচারবিভাগীয় তদন্ত কমিটি গঠনের আর্জি জানানো হয়েছে। শুক্রবার এই মামলার শুনানি ছিল। কিন্তু, বিচারপতি ডি ওয়াই চন্দ্রচূড় এবং বিচারপতি হৃষীকেশ রায়ের বেঞ্চ বসেনি। ফলে, শুনানি পিছিয়ে গেছে। আইনজীবী পারভিজ আরিফ টিটু জেলা প্রশাসনের নোটিসে স্থগিতাদেশ চেয়েছেন। বলা হয়েছে, নিরপরাধ সাধারণ মানুষকে হেনস্থা করতে একচেটিয়া ভাবে নোটিস পাঠানো হচ্ছে। আরও বলা হয়েছে, অভিযুক্তদের কাছ থেকে ক্ষতিপূরণ আদায় নিয়ে হাইকোর্ট ও সুপ্রিম কোর্টের ভিন্ন নির্দেশ রয়েছে। 
সহিংস আন্দোলনে জড়িত থাকার অভিযোগে এখনও পর্যন্ত মোট ৯২৫ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। আইনজীবীদের ‌বক্তব্য, ধৃতদের জামিন দেওয়ার আগে শর্ত রাখা হচ্ছে, ক্ষতিপূরণের অর্থ জমা দিতে হবে। যাঁরা কিছু অংশ জমা দিচ্ছেন, তাঁদের জামিন দেওয়া হচ্ছে। মামলার আবেদনে উত্তরপ্রদেশ সরকারকে সুপ্রিম কোর্টের ২০০৯ ও ২০১৮-‌র এই সংক্রান্ত দুটি রায় মেনে চলার নির্দেশ দেওয়ার আর্জি জানানো হয়েছে।‌

জনপ্রিয়

Back To Top