আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ ৪০ বছর আগে পাঞ্জাবের বার্নালা পরিবার জমি কেনার জন্য ঋণ নিয়েছিল। কিন্তু সে টাকা আজও শোধ হয়নি। ঋণ শোধ করতে না পেরে একে একে পরিবারের চারজন আত্মহত্যা করেছেন। যে তালিকায় এখনও অবধি শেষতম সংযোজন লাভপ্রীত সিং (‌২২)‌। 
পাঞ্জাবে কৃষকের আত্মহত্যা বেড়েই চলেছে। আজ থেকে চল্লিশ বছর আগে কৃষিকাজের জন্য জমি কিনবেন বলে ঋণ নিয়েছিলেন লাভপ্রীতের প্রপিতামহ যোগীন্দার সিং। কিন্তু ঋণের টাকা যথাসময়ে শোধ করতে পারেননি। ফলে তিনি প্রায় চল্লিশ বছর আগে আত্মহত্যা করেন। একই কারণে ২৫ বছর আগে আত্মহত্যা করেন লাভপ্রীতের ঠাকুরদা ভগবান সিং। ঋণের বোঝা সহ্য করতে না পেরে ২০১৮ সালে আত্মহত্যা করেন লাভপ্রীতের বাবা কুলবন্ত সিং। জানা গেছে পাঞ্জাবের ভূতনা গ্রামের বার্নালা পরিবারের এখনও প্রায় ৫৭০০০ টাকা ঋণ পরিশোধ করার ছিল। কিন্তু দীর্ঘদিন ধরে এই টাকা শোধ দিতে পারেননি লাভপ্রীত। ফলে বুধবার তিনি আত্মহত্যা করেন। 
জানা গেছে ৪০ বছর আগে এই পরিবারের উপর ৯ লক্ষ টাকা ঋণের বোঝা ছিল। জমি কেনার জন্য বেসরকারী সংস্থা থেকে ৬ লক্ষ টাকা ঋণ নিয়েছিলেন লাভপ্রীতের প্রপিতামহ। বাকি টাকা নিয়েছিলেন ব্যাঙ্ক থেকে। কিন্তু যথাসময়ে ঋণ পরিশোধ করতে না পারায় এই পরিবারের একের পর এক লোক আত্মহত্যা করেন। শেষ সংযোজন লাভপ্রীত সিং। 

জনপ্রিয়

Back To Top