আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির অনন্য নজির তিহার জেলে। জেলের মুসলিম সহবন্দীদের সঙ্গেই রোজার উপবাস রাখছেন কমপক্ষে ১৫০ জন হিন্দু বন্দীও। জেলের এক মুখপাত্র জানালেন, তিহারের সব কটি জেল মিলিয়ে ১৬৬৬৫ জন বন্দী আছে। তাদের মধ্যে মুসলিম–হিন্দু মিলিয়ে ২৬৫৮ জন রোজা রেখেছে। গত বছর ৫৯ জন হিন্দু বন্দী রোজা করেছিল। এবার সেই সংখ্যা তিন গুণ বেড়ে গিয়েছে।
রমজান মাসের শুরুতেই ওই হিন্দু বন্দীরা জেল সুপারদের জানিয়ে দিয়েছিলেন তাঁরাও মুসলিম সহবন্দীদের সঙ্গে রোজা রাখছেন। কারণ রমজানে রোজা করা বন্দীদের জন্য বিশেষ আয়োজন করা দস্তুর। যেমন জেলের ক্যান্টিন থেকে সস্তায় খেজুর এবং রুহ্‌আফজা শরবত কেনা যায়। সেজন্য কতজন রোজা রাখছে তা জেনে নেন জেল সুপাররা। এবছর রমজানে বিশেষ ব্যবস্থা রূপে রোজা ভাঙার সময় প্রার্থনার জন্য ধর্মীয় গুরুদের জেলের মধ্যে প্রবেশাধিকার দিয়েছে তিহার জেল কর্তৃপক্ষ। তিহার জেলের অফিসাররা জানালেন, হিন্দু বন্দীরা কেউ তাদের মুসলিম সহবন্দীদের প্রতি বন্ধুত্বতার খাতিরে রোজা রাখে। আবার কেউ বিশ্বাস করে কঠোর ব্রত পালন করলে ঈশ্বর তাদের সাজা লাঘব করে দেবেন। অফিসাররা আরও জানালেন, একইভাবে নবরাত্রির সময়ও হিন্দু বন্দীদের সঙ্গে নয়দিন উপবাস রেখে দেবীর পুজো করেন মুসলিম বন্দীরাও। শুধু তিহারেই নয় এই ব্যবস্থা দেশের প্রায় সব কটি জেলেই চালু বলে জানিয়েছেন তিহার জেলের অফিসাররা।         ‌‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top