আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ বিরোধীরা বারবার খোঁচা দিয়েছেন। সোশ্যাল মাধ্যমে বহু মিম শেয়ার হয়েছে। বক্তব্য একটাই, এই করোনা আবহে বাড়ছে একটা জিনিসই। প্রধানমন্ত্রীর দাড়ি। এবার সেই দাড়ি ছেঁটে ফেলার জন্য মানি অর্ডার করলেন এক চা বিক্রেতা। অতীতের এক ‘‌চা–বিক্রেতা’‌কে ১০০ টাকা পাঠালেন বর্তমানের চা বিক্রেতা। কেন, তাও স্পষ্ট বুঝিয়ে দিলেন।
মহারাষ্ট্রের বারামতিতে এক হাসপাতালের উল্টোদিকে চায়ের দোকান রয়েছে ওই চা বিক্রেতার। তাঁর কথায়, ‘‌যদি কিছু বাড়াতেই চান, তবে কাজের সুযোগ বৃদ্ধি করুন, দেশে টিকাকরণের হার এবং হাসপাতালের সংখ্যা বৃদ্ধি করুন।’‌ একটি সংবাদ মাধ্যমকে তিনি জানিয়েছে, প্রধানমন্ত্রীকে ঠিক কী কী অনুরোধ করেছেন তিনি। চিঠিতে তাঁর আর্জি, করোনায় আক্রান্ত হয়ে যাঁরা মারা গিয়েছেন, তাঁদের পরিবার পিছু ৫ লক্ষ টাকা করে সাহায্য করুক কেন্দ্র। লকডাউনে রুজি হারানো পরিবারগুলিকে ৩০ হাজার টাকা দেওয়া হোক।
এর পর বেশ চাঁচাছোলা ভাষাতেই চা বিক্রেতা বললেন, ‘‌লকডাউনে প্রধানমন্ত্রী নিজের দাড়ি বাড়িয়েছেন। কিন্তু দেশের এই পরিস্থিতিতে যদি কিছু বাড়ানোর প্রয়োজন থাকে, তবে তা হল কাজের সুযোগ। এর পাশাপাশি হাসপাতালের সংখ্যা এবং টিকাকরণের হারও বৃদ্ধি করা দরকার।’ পাশাপাশি তিনি এও বললেন, প্রধানমন্ত্রী অসম্মান করা কোনওভাবেই তাঁর লক্ষ্য নয়। ‘‌আমি জানি, তিনি নেতা হিসেবে সম্মানীয়। কিন্তু যে ভাবে দেশের গরিবদের অবস্থা ক্রমশও খারাপ হচ্ছে, তাতে এ ভাবে ছাড়া অন্য কোনও ভাবে ওঁর দৃষ্টি আকর্ষণ করা যেত না।’‌
 

জনপ্রিয়

Back To Top