আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ ভোটের ফলাফল বেরনোর আগের দিনই ভোটারদের ধন্যবাদ জানিয়েছিলেন তিনি। আমেঠী কংগ্রেসের থেকে ছিনিয়ে নেওয়ার পর শুক্রবার সকালে ধন্যবাদ জানিয়ে টুইট করলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী স্মৃতি ইরানি। টুইটে স্মৃতি লেখেন, ‘আমেঠীর জন্য নতুন সকাল। আমার দল ও আমাদের নেতৃত্বের প্রতি ভরসা রাখার জন্য লক্ষ লক্ষ মানুষকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি।’ এই টুইট করাটাই স্বাভাবিক। কারণ ২০১৪ সালেও যা হয়নি এবার তাই হয়েছে।
এই আমেঠী থেকে সঞ্জয় গান্ধী, রাজীব গান্ধী, সোনিয়া গান্ধী সাংসদ ছিলেন। এমনকী রাহুল গান্ধী গত ১৫ বছর ধরে সাংসদ। সেখানে রাহুলকে প্রায় ৫৬ হাজার ভোটে হারিয়ে দিলেন স্মৃতি। তবে আগেও দু’বার কংগ্রেসের হাতছাড়া হয়েছিল আমেঠী। ১৯৭৭ সালে জনতা পার্টির কাছে, ১৯৯৮ সালে বিজেপির কাছে। তার পর থেকে মোটামুটি গান্ধী পরিবারের হাতেই থেকেছে আমেঠী। 
তবে নিজের টুইটে স্মৃতির অঙ্গীকার, ‘আমরা আরও কঠোর পরিশ্রম করব। বিরোধীদের কথায় না ভুলে, কোনও পদ মোহ ছাড়াই দেশ গঠনের কাজ করব। দেশবাসীর কথা ভাবব।’

জনপ্রিয়

Back To Top