আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ আজ, বুধবার বিহারে শুরু হল বিধানসভা নির্বাচন। গত কয়েক দিন ধরেই প্রচার নিয়ে ব্যস্ত সরকার এবং বিরোধী দুই পক্ষই। আর এই চাপে বেশ কয়েকবার মাথাও গরম করে ফেললেন বিহারের বিদায়ী মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমার। 
গত সপ্তাহে নীতীশের এক জনসভায় দর্শকাশন থেকে একজন বলে ওঠেন, ‘‌লালু জিন্দাবাদ’‌। চটে যান নীতীশ। বলেন, ‘‌কে এসব বাজে বকছে, সামনে আসুক।’‌ তার পর আর এক জন লালুকে ‘‌চারা চোর’‌ বলে ওঠে। তখনই শান্ত হন নীতীশ। প্রসঙ্গত, এই পশুখাদ্য কেলেঙ্কারিতেই জেল খেটেছেন লালু।
রাহুল কিন্তু মঞ্চে দাঁড়িয়ে ঠান্ডা মাথায় সামলালেন খোঁচা। পশ্চিম চম্পারণের এক সভায় এদিন এক দল বলে ওঠেন, ‘‌রাহুল আমাদের পাকোড়া ভাজতে বলছে।’‌ রাহুল এতটুকু মাথা গরম করলেন না। হেসে বলে উঠলেন, ‘‌আপনি পাকোড়া ভাজেন?‌ তাহলে পরের বার যখন আসবেন, অবশ্যই মোদিজি আর নীতীশজিকে দেবেন?‌’‌ উপস্থিত দর্শকরা হাসি আর হাততালিতে ফেটে পড়েন।
এর পর রাহুল একের পর এক তোপ দাগেন মোদির দিকে। বলেন, ‘‌আজকাল বেকারত্বের প্রসঙ্গ মুখেই আনেন না প্রধানমন্ত্রী। কারণ উনি জানেন, বিহারের মানুষ আর ওঁর মিথ্যে প্রতিশ্রুতি বিশ্বাস করবেন না। বিহারের মানুষকে কাজের খোঁজে অন্য রাজ্যে যেতে হবে কেন? বিহারের যুবকরা কোনও অংশে কম? খামতি আসলে নীতীশ কুমার এবং প্রধানমন্ত্রীর মধ্যেই রয়েছে। তাই বিহারবাসীর জন্য রোজগারের বন্দোবস্ত করতে পারছেন না তাঁরা। কংগ্রেস দীর্ঘদিন কেন্দ্রে ক্ষমতায় ছিল। কী ভাবে দেশ চালাতে হয় আমরা জানি। কিন্তু আমাদের একটাই খামতি, আমরা বুক ফুলিয়ে মিথ্যে বলতে পারি না।’‌

জনপ্রিয়

Back To Top