আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ সোনার গয়না পরতে এতটাই ভালবাসেন যে বানিয়ে ফেলেছেন সোনার মাস্ক। মহামারী করোনার জেরে যখন গোটা বিশ্বের অর্থনীতির টালমাটাল অবস্থা তখন প্রায় ৩ লাখ টাকার সোনার মাস্ক পরে ঘুরছেন পুণের এক ব্যক্তি। জানা গিয়েছে, ওই ব্যক্তির নাম শঙ্কর কুরাদে। পুণের পিম্পরি চিঞ্চওয়াড় এলাকার বাসিন্দা তিনি।
এক ব্যক্তিকে রুপোর মাস্ক পরতে দেখে এমন খেয়াল মাথায় এসেছিল শঙ্করের। তিনি জানিয়েছেন, ‘‌সোশ্যাল মিডিয়ায় একটা ভিডিওতে একজনকে রুপোর মাস্ক পরতে দেখেছিলাম। তখন এই আইডিয়া মাথায় আসে যে একটা সোনার মাস্ক বানালে কেমন হয়। আমি সোনার গয়না পরতে খুবই ভালবাসি। ভাবনা মাথায় আসতেই পরিচিত এক স্বর্ণকারের সঙ্গে কথা বলি। এক সপ্তাহের মধ্যে উনি আমায় এই সোনার মাস্ক বানিয়ে দেন।’
শঙ্কর নিজেই জানিয়েছেন, এই সোনার মাস্কের ওজন প্রায় সাড়ে পাঁচ পাউন্ড। রয়েছে বেশ কিছু বিশেষ ছিদ্রও। তাই শ্বাস নিতেও কোনও অসুবিধে হয় না। দাম ২ লক্ষ ৮৯ হাজার টাকা। তবে করোনার সংক্রমণ ঠেকাতে এই মাস্ক কতটা কাজে লাগবে সে ব্যাপারে নিশ্চিত নন পুণের এই বাসিন্দা। তবে শখ হয়েছে এবং সাধ্য রয়েছে তাই বানিয়ে নিয়েছেন সোনার মাস্ক।
ছোট থেকেই সোনার প্রতি বিশেষ আকর্ষণ রয়েছে শঙ্করের। এমনকি তাঁর পরিবারের বাকি সদস্যরাও ভীষণভাবে সোনা প্রেমী। শঙ্করের এমন মাস্ক দেখে এবার তাঁরাও সোনার মাস্ক বানাচ্ছেন। তবে শঙ্করের কথায়, ‘‌জানি না এই মাস্ক পরলে আমি করোনা ঠেকাতে পারব কিনা। যদিও সরকারের সব নিয়ম মেনে চললে মনে হয় এই মাস্ক পরলে আমি করোনায় আক্রান্ত হব না।’‌ 
এতদিন গলায় মোটা সোনার চেন, কবজিতে সোনার ব্রেসলেট, দশ আঙুলে সোনার আংটি–এই সবই ছিল শঙ্করের ক্ষেত্রে পরিচিত ছবি। সঙ্গে এবার যোগ হল সোনার মাস্ক। 

জনপ্রিয়

Back To Top