আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ ডেরেক ও’‌ব্রায়েন সহ আটজন সাংসদকে সাসপেন্ড করা হল রাজ্যসভা থেকে। রবিবার রাজ্যসভায় কৃষি সংক্রান্ত বিতর্কিত বিলের বিরোধিতা করার পদ্ধতি পছন্দ হয়নি কেন্দ্রের। তাই এই সিদ্ধান্ত।
সঞ্জয় সিং, রাজু সতাব, কেকে রাগেশ, রিপুন বোরা, দোলা সেন, সইদ নাজির হোসেন, এলামারান কারিম এবং তৃণমূলের ডেরেক ও’‌ব্রায়েন। এই আটজনকে এক সপ্তাহের জন্য সাসপেন্ড করে দেওয়া হল রাজ্যসভা থেকে।
সোমবারই বিরোধীদলের সদস্যেরা নিজেদের মধ্যে বৈঠক করবেন বলে সূত্রের খবর। তাঁদের দাবি, গণতন্ত্রের পীঠস্থানে ‘‌গণতন্ত্র হত্যা’ করা হয়েছে। গায়ের জোরে এই কৃষি সংক্রান্ত বিতর্কিত দু’‌টি বিল পাশ করানো হল রাজ্যসভায়। 
বিরোধীদের আপত্তি উড়িয়ে‌ রাজ্যসভাতেও ধ্বনিভোটে পাশ করিয়ে নেওয়া হল কৃষি সংক্রান্ত বিতর্কিত দুই বিল। বিল দুটিকে সিলেক্ট কমিটিতে পাঠাতে বিরোধীরা ভোটাভুটি চাইছিলেন। সম্মতি দিলেন না ডেপুটি চেয়ারম্যান। প্রতিবাদে তুমুল হট্টগোল, ভাঙল মাইক। ছেঁড়া হল সভার রুলস বুক। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে যাওয়ায় নামল মার্শাল। ডেপুটি চেয়ারম্যান হরিবংশ নারায়ণ সিংয়ের বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাব আনল ১২টি বিরোধী দল। রবিবারই অনুমান করা হয়েছিল, পুরো ঘটনায় সাসপেন্ড হতে পারেন বিরোধী শিবিরের ২০–‌‌২৫ জন সাংসদ। ওয়াকিবহাল মহলের মতে, অতীতে এমন ঘটনা কখনও ঘটেনি। বিতর্কিত ও গুরুত্বপূর্ণ বিল কোনওরকম স্ক্রুটিনি ছাড়াই ধ্বনিভোটে পাশ করানোর ঘটনা নজিরবিহীন। লোকসভার পর রাজ্যসভায় বিতর্কিত বিল দুটি পাশ হওয়ার ফলে এখন রাষ্ট্রপতির স্বাক্ষর হলেই বিলগুলি আইনে রূপান্তর হয়ে যাবে। কংগ্রেস, তৃণমূল–‌‌সহ ১২টি দলের বক্তব্য, ‘‌সংসদে গণতন্ত্র হত্যা করা হয়েছে। আর, হত্যা চাক্ষুষ করলে প্রতিবাদ তো হবেই। রবিবার ছিল দেশের জন্য কালো দিন।’

 

 

 

 

জনপ্রিয়

Back To Top