আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ কাশ্মীর ইস্যুর আঁচ পড়ল ভারত–পাকিস্তান ট্রেন পরিষেবা সমঝোতা এক্সপ্রেস যাত্রাতেও। বৃহস্পতিবার ওয়াঘা সীমান্ত পেরতে অস্বীকার করেন সমঝোতা এক্সপ্রেসের চালক এবং গার্ড। আট্টারিতেই যাত্রীবোঝাই ট্রেনটি থমকে যায়। ওয়াঘার স্টেশন মাস্টার পরে সাংবাদিকদের বলেন, সমঝোতা এক্সপ্রেস পরিষেবা বন্ধ হয়নি। পাক চালক এবং গার্ড পাকিস্তানের ইঞ্জিন নিয়ে ট্রেনটি ভারতে আনতে অস্বীকার করেছেন। তাঁদের সেই বার্তা পেয়ে ভারতীয় চালক এবং গার্ড ভারতীয় রেলের ইঞ্জিন নিয়ে আট্টারি রওনা দেন সমঝোতা এক্সপ্রেসকে ওয়াঘা পার করাতে। ভারতকে কিছুটা স্বস্তি দিয়ে পাকিস্তানের বিদেশ মন্ত্রক এদিন সকালেই জানিয়েছে কর্তারপুর সাহিব করিডোরের কাজ থামাবে না তারা।
পাকিস্তানের ভারতের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করা প্রসঙ্গে রীতিমতো উদ্বিগ্ন দিল্লি। এর ফলে সারা বিশ্বের কাছে ভারত–পাকিস্তান দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের ছবি ম্লান হতে পারে। বৃহস্পতিবার বিবৃতি দিয়ে এই আশঙ্কাপ্রকাশ করে বিদেশ মন্ত্রক বলেছে, ভারতীয় হাই কমিশনারকে বের করে দেওয়াটা একটা দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের একতরফা সিদ্ধান্ত। প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং এদিন দিল্লিতে প্রতিরক্ষা বিষয়ক একটি অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে পাকিস্তানকে কটাক্ষ করে বলেছেন, ‘‌আপনি বন্ধু বদলাতে পারে পারেন কিন্তু প্রতিবেশী নয়। ঈশ্বর করুন, এরকম পড়শি যেন কারও না জোটে।’
অন্যদিকে, কাশ্মীর ইস্যুতে আমেরিকা পাকিস্তানকে পরামর্শ দিয়েছে, তারা যেন ভারতে হামলা না করে। মার্কিন স্বরাষ্ট্র দপ্তরের এক মুখপাত্রের মন্তব্য, ‘‌জম্মু–কাশ্মীরের নতুন আঞ্চলিক মর্যাদা সম্পর্কে ভারতের নীতি, বৃহত্তর স্বার্থে এর ফলে সেখানে উন্নয়ন হয় কিনা এবং অস্থিরতা থামে কিনা সেদিকে লক্ষ্য রাখছে আমেরিকা।’
ছবি:‌ এএনআই         ‌‌‌‌‌‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top