আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ ‌ভারতের আকাশসীমায় ফের পাকিস্তানি ড্রোন উড়তে দেখা গেল। বুধবার সন্ধ্যেয় ফের সীমান্ত পেরিয়ে পাকিস্তানের ড্রোন উড়তে দেখা গেল পাঞ্জাবের ফিরোজপুরে। এই নিয়ে তিন দিনে দু’বার একই এলাকায় সন্দেহজনক ভাবে পাকিস্তানি ড্রোন চিহ্নিত করল বিএসএফ। সূত্রের খবর, সন্ধ্যে সাড়ে ৭টা নাগাদ একটি ড্রোন দেখা যায় হজরসিংওয়ালা গ্রাম থেকে। আবার তেন্ডিওয়ালা অঞ্চল থেকে রাত ১০টা ১০মিনিট নাগাদ আরেকটি ড্রোন দেখতে পাওয়া যায়। সংবাদমাধ্যম সূত্রে খবর, গত দশদিনে আট বার এমন ঘটনা ঘটেছে পাঞ্জাবে। সীমান্ত পেরিয়ে ভারতে ঢুকে পড়ছে ওই পাকিস্তানি ড্রোন। উন্নত প্রযু্ক্তিতে তৈরি ওই ড্রোনগুলি। একে ৪৭–এর মতো বন্দুক বহন করার ক্ষমতা আছে ড্রোনগুলির। দ্রুতগতি সম্পন্ন হওয়ায় নজর এড়িয়ে যেতেও সক্ষম ড্রোনগুলি। 
গোয়েন্দা সূত্র জানাচ্ছে, দু’‌দিন আগেই বিপুল সংখ্যক একে ৪৭ রাইফেল, গ্রেনেড, স্যাটেলাইট ফোন এবং যুদ্ধের অন্যান্য সরঞ্জাম নিয়ে চারটি ড্রোন ঢুকেছিল পাঞ্জাবে। রেডারে যাতে ধরা না পড়ে, সেজন্য খুব নিচু দিয়ে উড়ে গিয়েছে সেগুলি। পাঞ্জাব পুলিশের এক উচ্চপদস্থ অফিসার জানিয়েছেন, ড্রোনগুলি উড়ে এসে পাঞ্জাবে অস্ত্রশস্ত্র ফেলে গিয়েছে। কিন্তু একবারও তারা রেডারে ধরা পড়েনি। তারা যে জিনিসগুলি ফেলে গিয়েছে, তার মধ্যে আছে পাঁচটি স্যাটেলাইট ফোন। তা থেকে মনে হয়, ওইসব অস্ত্রশস্ত্র জম্মু-কাশ্মীরে পাঠানো হচ্ছিল। সেনাপ্রধান বিপিন রাওয়াত আগেই জানিয়েছিলেন, পাঞ্জাবে ফের অশান্তি ও হিংসা ছড়ানোর ষড়যন্ত্র চালানো হচ্ছে। বাইরের শক্তির মদতেই সক্রিয় হয়ে উঠেছে নিষিদ্ধ খালিস্তানি জঙ্গি সংগঠন। এনআইএ সূত্রে খবর, পাকিস্তানেও খালিস্তানপন্থী জঙ্গিরা সক্রিয়। দল খালসা ইন্টারন্যাশনাল (ডিকেআই) নামে একটি সন্ত্রাসবাদী সংগঠন গড়ে পাকিস্তান থেকে কাজ চালাচ্ছে তারা। পাঞ্জাবকে ভারত থেকে বিচ্ছিন্ন করে পৃথক খালিস্তান তৈরির লক্ষ্যে খালিস্তান টেরর ফোর্স এবং ডিকেআই হাত মিলিয়ে কাজ করছে। এই সংগঠনকে মদত দিচ্ছে পাক গোয়েন্দা সংস্থা আইএসআই এবং অন্যান্য জঙ্গি সংগঠনগুলো।

জনপ্রিয়

Back To Top