আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ এক কাশ্মীরী চিকিৎসককে হোটেলে ঘর দিল না অনলাইন হোটেল অ্যাগ্রিগেটর ওয়ও রুমস্‌। ঘটনাটি ঘটেছিল শনিবার রাতে দিল্লির জসোলা বিহারের একটি হোটেলে। ওয়ও রুমস্‌ সূত্রের খবর, ওই হোটেলের ম্যানেজার ২৪ বছরের ওই চিকিৎসকের আধার কার্ডে তাঁর পরিচয় দেখার পরই ঘর দিতে অস্বীকার করেন। দিল্লির জামিয়া মিলিয়া ইসলামিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র মালিক আরবিদের বন্ধু ওই চিকিৎসক। তিনিই ঘটনাটি সামনে আনেন। আরবিদ বললেন, কর্মসূত্রে শনিবার দিল্লি এসেছিলেন ওই চিকিৎসক। রাত ৯টা নাগাদ ওয়ও ফ্ল্যাগশিপের মাধ্যমে জসোলা বিহারের ওই হোটেলে বন্ধুর জন্য ঘরও বুক করে দেন আরবিদ। কিন্তু তিনি সেখানে পৌঁছনোর পর ম্যানেজার পরিচয়পত্র হিসেবে তাঁর আধার কার্ড দেখার পরই কাউকে ফোন করেন। কাশ্মীরীদের হোটেলে ঘর দেওয়া যাবে কিনা সেটা ফোনে জিজ্ঞাসা করেন। ফোন রাখার পরই ম্যানেজার ঘর দিতে অস্বীকার করেন। এমনকি ম্যানেজার চিকিৎসককে এও বলেন, যে তাঁরা সরকারের কাছ থেকে হোয়াটস্‌অ্যাপে বার্তা পেয়েছেন যে জম্মু–কাশ্মীরের মানুষদের যেন হোটেলে ঘর দেওয়া না হয়।
ওয়ও কোম্পানির তরফে মুখপাত্র পরে জানান, ওই হোটেলের ম্যানেজারের বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু হয়েছে। কড়া শাস্তির পদক্ষেপ করা হয়েছে। তিনি কোথা থেকে ওই হোয়াটস্‌অ্যাপ বার্তাগুলি পেয়েছেন, কোন কোন হোটেলে তা ছড়িয়েছে এবং বার্তাগুলির কী ভিত্তি আছে তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। গ্রাহকদের অসুবিধা এবং এধরনের কোনওরকম পদক্ষেপ তাঁদের কোম্পানি বরদাস্ত করবে না বলেও কড়া ভাষায় জানিয়ে দিয়েছেন মুখপাত্র। দিল্লির পাহাড়গঞ্জের ওয়ও হোটেলগুলি অবশ্য বলেছে তাদের এধরনের কোনও সমস্যা নেই।      

জনপ্রিয়

Back To Top